বাংলাদেশ প্রতিবেদক: চাটখিল উপজেলার শাহাপুর ইউনিয়নের সোমপাড়া প্রসাদপুর পাটোয়ারী বাড়ির গৃহবধূ ফাহিমা স্বামী-সন্তানদের হারিয়ে তাদের খোঁজে দ্বারে-দ্বারে ঘুরছেন। এই ব্যাপারে গত ১১ নভেম্বর চাটখিল থানায় অভিযোগ দায়ের করলেও থানা পুলিশ এখনো কাউকে উদ্ধার করতে পারেনি।

ফাহিমা জানান, ২০১৩ সালে তার স্বামী নিখোঁজ হন। নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে তার দেবর এমরান হোসেন (৩০) তাকে মারধরসহ বিভিন্নভাবে নির্যাতন চালিয়ে আসছেন। গত ১৫ অক্টোবর ফাহিমার বড় ছেলে ফিহাদকে তার চাচা এমরান স্কুলে অনলাইনে ফরম জমা দেয়ার কথা বলে বাড়ি থেকে নিয়ে গোপন কোনো স্থানে আটক রাখেন।

এ ঘটনার বিষয়ে তিনি স্থানীয় চেয়ারম্যান-মেম্বারসহ গণ্যমান্য ব্যক্তিকে জানিয়ে কোনো সমাধান পাননি। এর কিছু দিন পরে তার ছোট ছেলে রিপাদ (১১) স্থানীয় একটি স্কুলের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র। সেও স্কুল থেকে নিখোঁজ হয়ে যায়।

তিনি অভিযোগ করে বলেন, থানায় অভিযোগ করার পরও আমি অসহায় হওয়ায় পুলিশকে কোনো টাকা-পয়সা দিতে না পারায় পুলিশ আমার স্বামী-সন্তানকে উদ্ধার কিংবা সন্ধান দেয়নি। তিনি তার স্বামী-সন্তানদের পাওয়ার জন্য সরকারের সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগিতা চেয়েছেন।

চাটখিল থানার ওসি (তদন্ত) মো: হুমায়ন কবির জানান, বিষয়টি তিনি অবগত আছেন এবং খতিয়ে দেখছেন।

Previous articleপটিয়ায় প্রকাশ্যে ব্যালট ছিনতাই, তিন কেন্দ্রের ভোট স্থগিত
Next articleদেশ বিরোধী ষড়যন্ত্রের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ হতে আইজিপি’র আহ্বান
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।