মঙ্গলবার, এপ্রিল ২৩, ২০২৪
Homeসারাবাংলাফুলবাড়ী কয়লাখনি বিরোধী ট্রাজেডি দিবসের ১৮ বছর পূর্তি আজ

ফুলবাড়ী কয়লাখনি বিরোধী ট্রাজেডি দিবসের ১৮ বছর পূর্তি আজ

অমর চাঁদ গুপ্ত: আজ ২৬ আগস্ট দিনাজপুরের ফুলবাড়ী কয়লাখনি বিরোধী ট্রাজেডি দিবসের ১৮ বছর পূর্তি। খনি বিরোধী আন্দোলন চলাকালীন ২০০৬ সালের এইদিনে তৎকালীন বিডিআরের গুলিতে এক কলেজ ছাত্রসহ তিন যুবক নিহতসহ দুইশতাধিক নারী ও পুরুষ আহত হয়েছিলেন।

জাতীয় সম্পদ রক্ষা ও উন্মুক্ত খনন পদ্ধতিতে ফুলবাড়ী কয়লাখনির কয়লা তোলার ষড়যন্ত্র ও চক্রান্ত বন্ধের দাবিতে তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি ওইদিন বহুজাতিক কোম্পানী এশিয়া এনার্জির ফুলবাড়ী অফিস ঘেরাও কর্মসূচি দেয়। ওই কর্মসূচিকে সমর্থন দিয়ে আন্দোলনে যোগ দেয় ফুলবাড়ী সম্মিলিত পেশাজীবী সংগঠন। কয়লাখনি এলাকা ফুলবাড়ী, বিরামপুর, পার্বতীপুর ও নবাবগঞ্জ এই চার উপজেলার কয়লাখনি বিরোধী মানুষ দলবব্ধ হয়ে সেদিন বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে এশিয়া এনাজির কার্যালয় ঘেরাও করতে যান।

ফুলবাড়ী ছোট যমুনা সেতুর পূর্ব পাশে তৎকালীন বিডিআরের গুলিতে ঘটনাস্থলেই আমিন, সালেকিন ও তরিকুল ইসলাম নামের তিন যুবক নিহত হয়। এরমধ্যে তরিকুল ইসলাম রাজশাহী কলেজের ছাত্র ছিল। এরপরই প্রতিবাদে অনির্দিষ্ট কালের জন্য হরতালসহ অবরোধ কর্মসূচির ডাক দেওয়া হয় তেল গ্যাস জাতীয় কমিটি। ২৬ আগস্ট থেকে ৩০ আগস্ট পর্যন্ত আন্দোলনকারীদের নিয়ন্ত্রণে ছিল ফুলবাড়ী। ৩০ আগস্ট সন্ধ্যায় পার্বতীপুর উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে তৎকালীন বিএনপি- জামায়াত চারদলীয় জোট সরকারের সাথে আন্দোলনকারীদের ৬ দফা সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। ৬ দফা সমঝোতা চুক্তিতে সরকারের পক্ষে স্বাক্ষর করেন রাজশাহী সিটি কর্পোরেশনের তৎকালীন মেয়র মিজানুর রহমান মিনু এবং আন্দোলনকারীদের পক্ষে স্বাক্ষর করেন তেল গ্যাস জাতীয় কমিটির কেন্দ্রীয় সদস্য সচিব অধ্যাপক আনু মুহাম্মদ।

সমঝোতা চুক্তির আংশিক সরকার বাস্তবায়ন করলেও এখন রয়ে গেছে এশিয়া এনার্জিকে দেশ থেকে বহিস্কার, দেশের কোথাও কোন উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লাখনি বাস্তবায়ন না করার মতো বেশ কয়েকটি দফা। যেগুলো বাস্তবায়নের দাবিতে এখনও আন্দোলন অব্যাহত রয়েছে। এরই মধ্যে নতুন করে যুক্ত হয়েছে আন্দোলনকারীদের নামে এশিয়া এনার্জির দায়ের করা পৃথক দুইটি মামলা। তেল গ্যাস খনিজ সম্পদ ও বিদ্যুৎ বন্দর রক্ষা জাতীয় কমিটি এবং ফুলবাড়ীর সম্মিলিত পেশাজীবী সংগঠন পৃথক পৃথকভাবে দিবসটি পালনের উদ্যোগ নিয়েছে। দিবসটি উপলক্ষে নেওয়া কর্মসূচির মধ্যে আছে সকালে কালো পতাকা উত্তোলন, কালো ব্যাজ ধারণ, স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধাঞ্জলি অর্পণ, স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে স্মারণসভা এবং মসজিদ, মন্দির, গীর্জা ও পেগোডায় দোয়া এবং বিশেষ প্রার্থনা।

ফুলবাড়ী শাখা তেল গ্যাস জাতীয় কমিটি আহবায়ক সৈয়দ সাইফুল ইসলাম জুয়েল বলেন, ‘এশিয়া এনার্জি এখনো ষড়যন্ত্র চালিয়ে যাচ্ছে। এই ষড়যন্ত্রের কারণেই আন্দোলনকারীদের নামে পৃথক দুইটি মিথ্যা মামলা দিয়েছে।’ সম্মিলিত পেশাজীবী সংগঠনের সমন্বয়ক এবং ফুলবাড়ী পৌরসভার সাবেক মেয়র মুরতুজা সরকার মানিক বলেন, ‘এশিয়া এনার্জি আন্দোলনকারী নেতাকর্মীদের আন্দোলন থেকে দূরে রাখতেই মিথ্যা মামলা দিয়েছে। এতে এশিয়া এনার্জি সফল হবে না।’

ফুলবাড়ী পৌরসভার মেয়র মাহমুদ আলম লিটন বলেন, ফুলবাড়ী কয়লাখনি এলাকায় মানুষ কয়লাখনি চায় না, ফুলবাড়ী কয়লাখনি বিরোধী আন্দোলনের সঙ্গে একাত্মতা ঘোষণা করে ফুলবাড়ী কয়লাখনি ট্রাজেডি দিবস পালন করা হচ্ছে। জনপ্রতিনিধি হিসেবে খনি এলাকার মানুষের সঙ্গে আন্দোলন-সংগ্রামে তার অংশ গ্রহণ থাকবে বলে তিনি দাবি করেন।

ফুলবাড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোস্তাফিজার রহমান বলেন, ফুলবাড়ী ট্রাজেডি দিবস উপলক্ষে নিরাপত্তার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মোহাম্মাদ জাফর আরিফ চৌধুরী বলেন, দিবসটিতে যাতে কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনার সৃষ্টি না হয় সেজন্য পুলিশ সদস্যের সমন্বয়ে উপজেলা প্রশাসনের প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments