রবিবার, জুলাই ২১, ২০২৪
Homeসারাবাংলাবঙ্গবন্ধু সেতুতে একদিনে রেকর্ড প্রায় ৪ কোটি টাকা টোল আদায়

বঙ্গবন্ধু সেতুতে একদিনে রেকর্ড প্রায় ৪ কোটি টাকা টোল আদায়

আব্দুল লতিফ তালুকদার: দেশের বর্তমান  দ্বিতীয় বৃহত্তম সেতু বঙ্গবন্ধু সেতু। টাঙ্গাইলের যমুনা নদীর ওপর নির্মিত এই সেতুটি দিয়ে উত্তরবঙ্গ ও ময়মনসিংহ অঞ্চলের কমপক্ষে ২৩টি জেলার যাত্রী প্রতিনিয়ত যাতায়াত করে থাকেন। এবার, ঈদুল আযহায় যানবাহনের পর্যাপ্ত চাপ থাকায় সেতুটি উদ্বোধনের প্রায় ২৬ বছর পর এক দিনে টোল আদায়ে সর্বোচ্চ রেকর্ড সৃষ্টি করেছে বঙ্গবন্ধু সেতু কর্তৃপক্ষ। এনিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ কোটি ৮০ লাখ ৬৩ হাজার ৪০০ টাকা আদায় করেছে সেতু কর্তৃপক্ষ। এদিন সেতু দিয়ে ৫৩ হাজার ৪০৭টি যানবাহন পারাপার হয়েছে। উদ্বোধনের পর একদিনে সর্বোচ্চ টোল আদায় এটি। শনিবার (১৫ জুন) সকালে বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব সাইট অফিসের নির্বাহী প্রকৌশলী আহসানুল কবীর পাভেল বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব সাইট অফিস সূত্রে জানা গেছে, গেল শুক্রবার (১৩ জুন) রাত ১২টা থেকে  (১৪ জুন) রাত ১২ টা পর্যন্ত বঙ্গবন্ধু সেতু দিয়ে গত ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ একদিনে ৩ কোটি ৮০ লাখ ৬৩ হাজার ৪০০ টাকা আদায় এবং এর বিপরীত ৫৩ হাজার ৪০৭টি যানবাহন পারাপার হয়েছে। এরমধ্যে টাঙ্গাইলের বঙ্গবন্ধু সেতু পূর্ব অংশের ঢাকা ও ময়মনসিংহের দিকে ৩৩ হাজার ২৫টি যানবাহন পারাপার হয়। এ থেকে টোল আদায় হয় ২ কোটি ৬৪ লাখ টাকা এবং সিরাজগঞ্জ সেতু পশ্চিম অংশে উত্তরবঙ্গের দিকে ২০ হাজার ৬৮৩ টি যানবাহন পারাপার হয়। এ থেকে টোল আদায় হয়েছে ১ কোটি ৭৪ লাখ ২৩ হাজার ৪০০ টাকা। এরমধ্যে সেতুর টাঙ্গাইলের পূর্ব ও সিরাজগঞ্জের পশ্চিম প্রান্তে মোটরসাইকেল পারাপারের সংখ্যা ১০ হাজার ১০৫টি, হালকা ছোট যানবাহনের সংখ্যা ১৯ হাজার ৯৭২টি, বাস পারাপারের সংখ্যা ১২ হাজার ৮৭১টি এবং ট্রাক পারাপার হয়েছে ১০ হাজার ৭৬০টি। ২০২৩ সালের ২৮ জুন ২৪ ঘণ্টায় অর্থাৎ একদিনে ২৪ ঘণ্টায় সেতুর ওপর দিয়ে ৫৫ হাজার ৪৮৮টি যানবাহন পারাপার হয়েছিল। এসব যানবাহন থেকে টোল আদায় হয় ৩ কোটি ৫৮ লাখ ৪০ হাজার ২০০ টাকা। এটিই ছিল সর্বশেষ এ সেতুর টোল আদায়ের রেকর্ড। ১৯৯৮ সালের ২৩ জুন বঙ্গবন্ধু সেতু উদ্বোধন করা হয়। উদ্বোধনের পর থেকেই ঢাকা-টাঙ্গাইল-বঙ্গবন্ধু সেতু মহাসড়ক দিয়ে উত্তরবঙ্গের ২৩টি জেলার যানবাহন চলাচল করে। স্বাভাবিকভাবে গড়ে প্রতিদিন ১৩-১৫ হাজার যানবাহন সেতুটি দিয়ে পারাপার হয়। ঈদসহ বিভিন্ন উৎসবের ছুটিতে পরিবহনের সংখ্যা বেড়ে যায় কয়েকগুণ। তবে প্রতিবারই ঈদ যাত্রার ভোগান্তিতে পড়তে হয় উত্তরবঙ্গগামী নাড়ির টানে ফেরা ঘরমুখো মানুষদের। কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন ফোর লেনের কাজ চলমান থাকায় যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। কাজ শেষ হলে আগামিতে আর যানজট হবে না।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments