বাংলাদেশ প্রতিবেদক: রূপালী পর্দার আলোচিত-সমালোচিত নায়িকা পরীমনি সব সময়েই আলোচনায় থাকছেন। অভিনয় শিল্পে খুব বেশি জনপ্রিয়তা না পেলেও নানা কারণে তিনি যথেষ্ট ধাপটের সঙ্গে চলছেন। তার অভিনিত ছবিগুলো খুবই ব্যবসা সফল না হলেও ব্যক্তিগত জীবনে আর্থিক সাফল্য পেয়েছেন তিনি।

আলোচনায় থাকার জন্য নানা সময় নানা কাণ্ড ঘটিয়েছেন আলোচিত এই নায়িকা। রাজধানীর পাঁচ তারকা হোটেলে জন্মদিন পালন, বিএফডিসিতে ঘটা করে পশু কোরবানী দিয়ে আলোচনায় আসেন তিনি। এসব নিয়ে টিনেজাররা মজা করতেও ছাড়েননি। সবশেষ আলোচনায় আসেন গত ৯ জুন মধ্যরাতে সাভারের বিরুলিয়ায় অবস্থিত ঢাকা বোট ক্লাবের ঘটনায়। মধ্যরাতে ওই ক্লাবে পরীমনিকে ‘ধর্ষণ ও হত্যা চেষ্টা’ করা হয়েছে বলে অভিযোগ তোলেন তিনি। এ অভিযোগের বিচার চাইতে ফেসবুকে পোস্ট দেন, পরে ঘটনা জানাতে বাসায় ডাকেন সাংবাদিকদের। অভিযোগ তোলেন পুলিশের বিরুদ্ধে। সংশ্লিষ্ট থানা তাকে সহযোগিতা করেনি বলে। পরে তিনি মামলা করেন। যাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলেন তাদের গ্রেফতারও করা হয়, নেওয়া হয় রিমান্ডেও। এরপর পরীমনিকে ডাকা হয় ডিবি কার্যালয়ে। সেখান থেকে বের হয়ে তিনি পুলিশের প্রতি পূর্বের ক্ষুব্ধতা ভুলে যান। পুলিশের তৎপরতাকে ‘ম্যাজিক্যাল এ্যাকশন’ বলে মন্তব্য করেন। ৯ জুন বোর্ড ক্লাবের ঘটনার আগের রাতে গুলশানের একটি ক্লাবে পরীমনির বিরুদ্ধে ভাংচুরের অভিযোগ আনেন ওই ক্লাবের সভাপতি। এ ঘটনায় ক্লাব কর্তৃপক্ষ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরিও করেন। দিন যতো গড়ায় একের পর এক নানা ঘটনা বের হতে থাকে। গণমাধ্যমের খবরে এবং সোস্যাল মিডিয়ায় পরীমনিকে নিয়ে নানা প্রশ্নের উত্থান হয়। খোদ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি প্রশ্ন তোলেন মধ্যরাতে কেনো ক্লাবে গিয়েছিলেন পরীমনি। অভিনয় জগতে আসা, একাধিক বিয়ে, লিভ টুগেদারসহ তার ব্যক্তিগত নানা বিষয় নিয়ে প্রশ্ন তোলেন সাধারণ মানুষ। পেশায় সফল না হয়েও কিভাবে অঢেল সম্পদের মালিক হয়েছেন পরীমনি তা নিয়ে নানা প্রশ্ন তোলেন অনেকে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকে পরীমনির সম্পদের খোঁজ নেওয়ার দাবি করেন। দীর্ঘদিন ধরে চলচ্চিত্রে অভিনয় থেকে কোনো আয় না থাকার পরও কিভাবে তিনি অভিজাত এলাকায় বিশাল বহুল বাড়ি থাকেন? দামি গাড়ি ব্যবহার করেন তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন অনেকে। মাত্র দু’মাস আগে দেশের একজন শিল্পপতির সঙ্গে দুবাই বেড়াতে যান পরীমনি। সেখানে গিয়ে ওঠেন বুর্জ আল খলিফার প্রেসিডেন্ট স্যুটে। মধ্যরাতে বোর্ড ক্লাবের ঘটনার পর এভাবেই একের পর এক বেরিয়ে আসতে থাকে পরীমনির নানা কা-। জনমনে তৈরি হয় নানা প্রশ্ন।

কেঁচো খুঁড়তে সাপ বের হচ্ছে
পুলিশের একাধিক কর্মকর্তা গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ৮ জুন বুধবার রাতে বোট ক্লাবে পরীমনি-কাণ্ডের তদন্তে নেমে কেঁচো খুঁড়তে সাপ বের হচ্ছে। তার ব্যাপারে জানাতে ঢাকার একাধিক সোশাল ক্লাবের কর্মকর্তারা আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর কর্মকর্তাদের সঙ্গে যোগাযোগ শুরু করেছেন। তারা পুলিশ ও গোয়েন্দাদের জানিয়েছেন, পরীমনি তার কস্টিউম ডিজাইনার জিমিসহ কয়েকজন তরুণ-তরুণী নিয়ে প্রায়রাতেই অভিজাত ক্লাব ও তারকা হোটেলে ঘুরে বেড়াতেন। তাদের সঙ্গে নিয়ে মদ পান করতেন মধ্যরাত পর্যন্ত। এক্ষেত্রে প্রায় রাতেই তার কারণে ক্লাবের আইন ভাঙা হতো। বিশেষ করে হাফপ্যান্ট পরে তার সঙ্গী হওয়া জিমি ড্রেসকোডের তোয়াক্কা করতেন না কখনোই। এক ক্লাবে সময় কাটিয়ে তিনি যেতেন আরেক ক্লাবে। গুলশান পুলিশের একাধিক কর্মকর্তা জানান, গত ৩ জুন রাত ১২টার পর পরীমনি তার সাবেক কথিত স্বামী তামিম হাসান ও দুটি বেসরকারি টেলিভিশনের দুজন কর্মকর্তা পরিচয়ধারীকে নিয়ে গুলশানের একটি অভিজাত ক্লাবে যান। তখন তারা মদ্যপ ছিলেন। ক্লাবে ঢুকে পরীমনি ও অন্যরা বার ব্যবহার করতে চান। বার বয় জালাল এতে অসম্মতি জানালে পরীমনি তার গালে চড় মারেন। ক্লাব কর্মকর্তারা বেসামাল আচরণের প্রতিবাদ করলে তিনি নিজেই পুলিশে কল করেন। গুলশান থানা পুলিশের দুটি পিকআপ ভ্যান সেখানে যায়। পরে তারা বুঝিয়ে পরীমনিকে বাসায় পাঠান। এ খবর পুলিশের সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে। এদিকে একাধিক ক্লাব কর্মকর্তা জানিয়েছেন, সব ক্লাবের ড্রেসকোড এবং নিয়ম রয়েছে। রাত ১১টার পর ক্লাব ও বারে সার্ভিস বন্ধ রাখার নিয়ম। পরীমনি যতবার যে ক্লাবে অতিথি হয়ে গেছেন সেখানেই এর ব্যত্যয় ঘটেছে। বনানীর একজন ব্যবসায়ী জানান, পরীমনি কথায় কথায় পুলিশের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তার নাম ব্যবহার করেন। সেলিব্রেটি হওয়ায় পুলিশও তার সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলে মজা পায়। গায়ে দামি পারফিউম মেখে বিলাসবহুল গাড়িতে ঘুরে বেড়ানো পরীর মুখে মদের গন্ধ থাকলেও কেউ তাকে আটকাতে সাহস করেন না।

বোর্ড ক্লাবে সে রাতে কী ঘটেছিল
কী এমন ঘটেছিল সেদিন, যে চার দিন পর ফেসবুকে পোস্ট দিয়ে বিচার চাইতে হচ্ছে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে? তাই জানাতে বনানীর বাসায় সাংবাদিকদের ডেকেছিলেন পরীমনি। পরীমনি জানান, ৮ জুন রাতে পারিবারিক বন্ধু অমি ও ব্যক্তিগত রূপসজ্জাশিল্পী জিমির সঙ্গে বাইরে বের হয়েছিলেন তিনি। রাত তখন ১২টা পেরিয়েছে। বন্ধুটি তাঁদের নিয়ে যান আশুলিয়ার একটি ক্লাবে। সেখানে মদ্যপানরত কয়েকজন ব্যক্তির সঙ্গে পরীমনির পরিচয় করিয়ে দেন অমি। ওই ব্যক্তিদেরই একজন হঠাৎ জোর করে তাঁর মুখে পানীয়র গ্লাস চেপে ধরে এবং শ্লীলতাহানির চেষ্টা করে। এ সময় মারধর করা হয় পরীর সঙ্গে থাকা জিমিকেও। এ ঘটনায় পরী ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিনের সংশ্লিষ্টতার অভিযোগ করেন। ঘটনার পরপরই বনানী থানায় অভিযোগ করতে গিয়েছিলেন পরীমনি। তিনি অভিযোগ করেন, সে সময় দায়িত্বপ্রাপ্ত কোনো কর্মকর্তা তাঁর অভিযোগ রেকর্ড করেননি। বরং সকালে এসে অভিযোগ করার পরামর্শ দেন। এ সময় পুলিশের সাহায্যে পরীমনি হাসপাতাল পর্যন্ত গিয়েও আতঙ্কবশত চিকিৎসা না নিয়েই বাড়ি ফিরে যান। এই ঘটনায় মারাত্মক ভেঙে পড়েছেন পরীমনি। ভীষণ অসুস্থ হয়ে পড়েন তিনি। এর আগে ‘আমাকে রেপ এবং হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে’ অভিযোগ করে নিজের ভ্যারিফায়েড ফেসবুক পোস্টে এ অভিযোগ করেছিলেন ঢালিউডের আলোচিত-সমালোচিত নায়িকা পরীমনি। ১৩ জুন রোববার সন্ধ্যা ৭টা ৫৩ মিনিটে ফেসবুক পোস্টে এ অভিযোগ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে বিচার দাবি করেছেন তিনি। রাতে নিজের বনানীর বাসায় এক সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে ঘটনার প্রকাশযোগ্য বিস্তারিত জানান এই ঢালিউড তারকা। ফেসবুকে পরীমনি লিখেছেন, ‘আমি শারীরিক নির্যাতনের শিকার হয়েছি। আমাকে রেপ এবং হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে। আমি এর বিচার চাই। এই বিচার কোথায় চাইব? কে করবে সঠিক বিচার?’

অমির সঙ্গে বন্ধুত্ব যেভাবে
পরীমনি ও তুহিন সিদ্দিকী অমি’র সম্পর্ক নিয়ে অমির বাবা তোফাজ্জল হোসেন তোফা গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন যে, অমি ও পরীমনি ছিল স্কুলজীবনের বন্ধু। তার সঙ্গে কোনো পারিবারিক বা আত্মীয়তার সম্পর্ক নেই। অমির বাবা আরো জানান, অমির জন্ম ঢাকার আশকোনায়। আর সেখানেই সে বড় হয়েছেন। পরীমনির সঙ্গে তার বন্ধুত্ব ছিল স্কুলজীবনে। এর পর আর যোগাযোগ ছিল না। কিন্তু হঠাৎ করে তিনি জানতে পারেন পরীমনির করা মামলা’য় অমিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তোফাজ্জল হোসেন বলেন, অমি কয়েকটি দেশের নাগরিক। আর অমি সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়ার নাগরিক। এ ছাড়া অমির রয়েছে ৭/৮টি দেশের পাসপোর্ট এবং সবই ভিসা লাগানো। যদি আগে জানতে পারতাম পরীমনির মামলায় অমিকে গ্রেফতার করা হবে, তা হলে আগেই তাকে দেশের বাইরে পাঠিয়ে দিতাম। তিনি আরও বলেন, সাবেক স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বেঁচে থাকলে আমি কোনো চিন্তাই করতাম না। তিনি মারা যাওয়ার পর আমি অনেকটা নিষ্ক্রিয় হয়ে পড়েছি।

কেন এতো রাতে ক্লাবে গেলেন
চিত্রনায়িকা পরীমনি এত রাতে কেন বোট ক্লাবে গেলেন এ নিয়েও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নানা প্রশ্নের জন্ম নেয়। খোদ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগরও প্রশ্ন তোলেন এ প্রসঙ্গে। ১৫ জুন দুপুরে ডিবি অফিসের সামনে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ মন্তব্য করেন। মিশা সওদাগর বলেন, আমি নিরপেক্ষভাবে বলতে চাই- পরী যে লেভেলের নায়িকা ছবির কথা নিয়ে কোনো মিটিং করতে হলেও প্রডিউসারকে তার কাছে যেতে হবে। সাইনিংয়ের জন্য হলে পরীর বাসায় গিয়ে সাইন করাতে হবে। পরীর তাদের কাছে যাওয়া উচিত হয়নি। তিনি বলেন মধ্যরাতে ক্লাবে যাওয়া উচিত হয়নি পরীমনির।

একাধিক বিয়ের খবর
প্রথাবহির্ভূত জীবনযাপন প্রণালির জন্য পরীমনিকে নিয়ে সাধারণ সমাজে নানা রকম আলোচনা-সমালোচনা আছে। ঢাকায় আসার আগেই তাঁর বিয়ে হয়েছিল, এখবরও বেরিয়েছে। তাঁর সেই প্রথম স্বামী সঙ্গে পরীমনির অন্তরঙ্গ ছবিও রয়েছে গুগল সহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। গণাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছিল প্রথাম বিয়ের কাবিন নামাও। কিন্তু তখনও তিনি ঢাকায় আসেননি। এসব প্রসঙ্গে জানতে চাইলে কেন লুকোছাপা না করেই সাংবাদিকদের জবাব দিয়েছেন, ‘আমার বহু ছেলের সঙ্গে ছবি আছে।’ ২০১৮ সালে নয়াদিগন্ত পত্রিকার এক সাংবাদিকের সঙ্গে তাঁর প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। পরের বছর ১৪ ফেব্রুয়ারি তাঁদের বাগ্দান হয়। পরে সেই সম্পর্ক ভেঙে যায়। ২০২০ সালের ৯ মার্চ তিন টাকা দেনমোহরে পরিচালক কামরুজ্জামান রনিকে বিয়ে করে হইচই ফেলে দেন। সেই বিয়েও বেশি দিন স্থায়ী হয়নি।

অল্প সময়ে এতো টাকার মালিক হলেন কিভাবে?
যেখানে অনেক নামকরা ও সুপারহিট সিনেমা উপহার দেওয়া চিত্রনায়িকা যুগের পর যুগ অভিনয় করেও এত অর্থবিত্তের মালিক হতে পারেননি, সেখানে পরীমনির মতো নায়িকা যার উল্লেখ করার মতো চলচ্চিত্র ক্যারিয়ার নেই, মাত্র অল্প কয়েক বছরে অর্থবিত্তের মালিক হওয়া অস্বাভাবিক ঘটনা। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক চলচ্চিত্রাঙ্গণের বেশ কয়েকজন শিল্পী বলেন, শোবিজে পরীমনি তার অভিনয় দিয়ে যতটা না পরিচিতি পেয়েছেন, তার চেয়ে বেশি পরিচিতি পেয়েছেন ক্ষমতাশালী ও প্রভাবশালী মহলে তার ঘনিষ্ট চলাফেরা দিয়ে। ক্যারিয়ারে সাফল্যহীন একজন নায়িকার পক্ষে বনানীর মতো অভিজাত এলাকায় ফ্ল্যাটে বসবাস এবং দামী গাড়ি কেনাসহ অল্প সময়ে অর্থবিত্তের মালিক হওয়া অসম্ভব। তারা বলছেন, পরীমনির আয়ের উৎসের খোঁজ নিলে তিনি তার সঠিক হিসাব দিতে পারবেন কিনা সন্দেহ আছে। কারণ, নায়িকার তকমা লাগিয়ে একজন ‘কমফোর্ট গার্ল’ হিসেবে প্রভাবশালী মহলে তিনি ঘুরে বেড়ান। তাদের দ্বারা বিভিন্নভাবে ব্যবহৃত হয়ে অর্থ-বিত্তের মালিক হয়েছেন, চলচ্চিত্র দিয়ে নয়। পরীমনির এই শানশওকতে চলার অর্থ কোথা থেকে পান। যার কোনো সিনেমা হিট হয়নি, হাতেও তেমন কাজ নেই, এমর প্রশ্ন শুধু চলচ্চিত্রেই নয় সর্বত্র।

পরীমনির বাসা যেন মদের বার, বসে আসর
বনানী ১৯/এ সড়কের ১২ নম্বর বাড়ির পাঁচতলাতে ঢুকলে যে কেউ প্রথম দফায় চমকে উঠবেন। সারি সারি বিশ্বের নামিদামি ব্র্যান্ডের মদের বোতল সাজানো দেখে মনে হবে পশ্চিমা দেশগুলোর কোনো বিলাসবহুল বারে ঢুকে পড়েছেন আপনি। তবে পাঁচতলার এ ফ্ল্যাটে ঢুকে আপনি বার বা যাই মনে করেন না কেন আসলে এটাতে থাকেন চিত্রনায়িকা পরীমনি। নামিদামি মদের বোতলে ঘেরা ও বারের আদলে সাজানো এটি পরীমনিরই বাসা। এই বাসাতেই নিয়মিত মদের আসর বসান পরীমনি। রাতভর চালান পার্টি ও গান-বাজনা। পরীমনির বাসার এমনই চিত্র উঠে এসেছে গণমাধ্যমের অনুসন্ধানে। গত ১৩ জুন রাতে ধর্ষণচচেষ্টা ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগ এনে সংবাদ সম্মেলন করেন এ নায়িকা। পরীমনির নিজ বাসাতেই আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলন কাভার করতে যান বিভিন্ন গণমাধ্যমের একাধিক সাংবাদিক। এদের মধ্যে অনেকেই আবার বিনোদন বিটের বাইরের লোক। এমনই কয়েকজন সংবাদিক পরীমনির বাসাতে ঢুকে শুরুতেই সংশয়ে পড়ে যান। পরীমনির বাসার ঠিকানা ভুল করে কি কোনো বারে ঢুকে পড়েছেন কি-না এই চিন্তা পেয়ে বসে তাদের। কারণ, ড্রইংরুমে ঢুকতেই হাতের বাম পাশে দেখা যাবে কাচঘেরা বিশাল একটি ঘর। স্বচ্ছ কাচেঘেরা এ রুমে সাজানো সারি সারি বিদেশি ব্রান্ডের মদের বোতল। সুন্দর ডেকোরেশনের নানা সাইজের র‌্যাকে সারি সারি বোতল দাঁড়িয়ে আছে। আবার কিছু বোতল কাত করে শুইয়ে রাখা হয়েছে। ছোট ছোট টেবিলের ওপরও রাখা আছে বোতল। চকচকে-ঝকঝকে এসব মদের বোতল গুনে শেষ করার মতো নয়।

সম্প্রতি এক শিল্পপতির সঙ্গে দুবাই বেড়াতে যান পরী, নাসিরের সঙ্গেও ছিল পূর্ব পরিচয়
অভিনেত্রীর তকমা ব্যবহার করে পরীমনি ক্ষমতাসীন দল, প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা থেকে শুরু করে বিভিন্ন শিল্পপতিদের সাথে তার সখ্য গড়ে তোলেন। এক বিনোদন সাংবাদিকের সাথে তার প্রেম এবং বাগদান হলেও শেষ পর্যন্ত পরিণতি লাভ করেনি। পরবর্তীতে রনি নামে এক নাট্যাভিনেতার সাথে বিয়ে হয় এবং সে বিয়েও টিকেনি। বোট ক্লাবের ঘটনার সাথে সম্পৃক্ত নাসির উদ্দিন আহমেদের সাথে তার পূর্ব পরিচয় ছিল বলে পরীমনির ঘনিষ্টজনরা জানায়। এছাড়া একটি বৃহৎ শিল্প গোষ্ঠীর ঊর্ধ্বতন ব্যক্তির সাথেও তার সম্পর্কের কথা শোনা যায়। মাস দুয়েক আগে পরীমনি দুবাই বেড়াতে গিয়েছিলেন। সূত্রের তথ্যমতে, সে সময় তার সঙ্গে এক শিল্পপতি ছিলেন। দুবাই গিয়ে তারা বুর্জ আল খলিফার প্রেসিডেন্ট স্যুটে গিয়ে উঠেন। পরীমনি বেশ জাঁকজমকের সাথে তার গত জন্মদিনের আয়োজন করেন হোটেল সোনারগাঁওয়ে। এসব ঘটনায় চলচ্চিত্রাঙ্গণে নানা প্রশ্ন উঠে।

ক্ষমতাসীন দলের এক শীর্ষ স্থানীয় জনপ্রতিনিধির সঙ্গে ঘনিষ্টতা
খবর নিয়ে জানা গেছে এ পর্যন্ত পরীমনি অভিনীত খুব বেশি সিনেমা মুক্তি পায়নি। মুক্তিপ্রাপ্ত এসব সিনেমা ব্যবসা সফল হয়নি। তারপরও পরীমনি ব্যাপক প্রভাবশালী হয়ে উঠেন। চলচ্চিত্রের এক সময়ের বড় প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান জাজ মাল্টিমিডিয়া কর্ণধার তাকে বিএমডব্লিও গাড়ি উপহার দেন বলে জানা যায়। যদিও শেষ পর্যন্ত তার প্রতিষ্ঠান থেকে পরীমনিকে নিয়ে সিনেমা নির্মিত হয়নি। চলচ্চিত্রে অভিনয় করাকালেই তার সাথে ক্ষমতাসীন দলের এক শীর্ষ স্থানীয় জনপ্রতিনিধির সাথে ঘনিষ্ট যোগাযোগ হয়। বছর কয়েক আগে ঢাকার বাইরে একটি সিনেমার শুটিং চলাকালে পরীমনিকে শুটিং স্পট থেকে হেলিকপ্টারে করে তার এলাকায় নিয়ে যান। এ নিয়ে তখন চলচ্চিত্র পাড়ায় বেশ গুঞ্জণ ছড়ায়।

শামসুন্নাহার স্মৃতি থেকে যেভাবে পরীমনি
খবর নিয়ে জানা গেছে ১৯৯২ সালে নড়াইলে জন্ম। আসল নাম শামসুন্নাহার স্মৃতি। মাত্র আড়াই বছর বয়সেই মাকে হারান। এরপর চলে যান পিরোজপুরে নানা শামসুল হক গাজীর কাছে। সেখান থেকেই এসএসসি ও এইচএসসি। সাতক্ষীরা সরকারি কলেজে বাংলায় স্নাতক পড়াকালীন ২০১১ সালে ঢাকায় আসেন, নাচ শিখতে ভর্তি হন বুলবুল ললিতকলা একাডেমীতে। মডেলিংয়ের মাধ্যমে বিনোদন অঙ্গনে পা রাখেন পরীমনি। এ ছাড়া বিভিন্ন অনুষ্ঠানে নাচা শুরু করেন। অভিনয় জীবনের শুরুতে টিভির জন্য করেন ‘সেকেন্ড ইনিংস’, ‘এক্সক্লুসিভ’, ‘এক্সট্রা ব্যাচেলর’, ‘নারী’। প্রথম প্রধান চরিত্র করেন ‘নবনীতা তোমার জন্য’তে। এতে তাঁর সহশিল্পী ছিলেন অভিনেতা আমিন খান ও অভিনেত্রী পপি। প্রথম অভিনীত নাটক ‘সেকেন্ড ইনিংস’ এ তাঁর মায়ের চরিত্রে ছিলেন অভিনেত্রী চম্পা। এই অভিনেত্রীই তাঁকে সিনেমায় কাজ করার উৎসাহ দেন। একটি ছবিতে কাজ শুরু করতে না করতেই একসঙ্গে ২৩টি সিনেমায় চুক্তিবদ্ধ হয়ে আলোচনায় আসেন পরীমনি। সেই শুরু। ছবি মুক্তির আগেই গণমাধ্যমে নানা রকম খবরে আসতে থাকে তাঁর নাম। এরপর ২০১৫ সালে মুক্তি পায় পরীমনির প্রথম ছবি ‘ভালোবাসা সীমাহীন’। তবে নায়িকা হিসেবে আলোচনায় আসেন ‘রানা প্লাজা’ ছবিটিতে চুক্তিবদ্ধ হওয়ার পর।

গুলশানের ক্লাবে ভাঙচুর, পরীর বিরুদ্ধে জিডি
চিত্রনায়িকা পরীমনির বিরুদ্ধে থানায় জিডি করেছে গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাব। গত ৮ জুন ক্লাবে ভাঙচুর চালিয়েছেন এ অভিনেত্রী। এমন অভিযোগ করা হয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে। এ বিষয়ে বুধবার (১৬ জুন) রাজধানীর গুলশান থানায় জিডিটি করা হয়েছে। জিডিতে গুলশানের অল কমিউনিটি ক্লাবে গত ৮ জুন পরীমণি ভাঙচুর চালিয়েছেন বলে অভিযোগ করা হয়। জানা যায় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে পরীমনির গ্লাসস ছুড়ে মারেন। এতে অন্তত ১৫ গ্লাস ভেঙে যায়।

পরীমনির বিরুদ্ধে অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা
অল কমিউনিটি ক্লাবে পরীমনির ভাঙচুর চালানোর বিষয়ে সুনির্দিষ্ট অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অতিরিক্ত কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার। তিনি বলেন, সুনির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি। পেলে অবশ্যই ব্যবস্থা নেব। ১৭ জুন বৃহস্পতিবার দুপুরে ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন ডিবির অতিরিক্ত কমিশনার এ কে এম হাফিজ আক্তার। পরীমনিকে অল কমিউনিটি ক্লাবের বিষয়ে আলাদাভাবে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে কি না-এমন প্রশ্নের জবাবে এ কে এম হাফিজ আক্তার বলেন, আমরা উত্তরার ডিসির সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা করছি। পরে এ বিষয়ে জানানো হবে।

পরীমনির করোনার উপসর্গ
পরীমণি কয়েকদিন ধরে জ্বরে ভুগছেন। সেই সাথে ১৮ জুন শুক্রবার একাধিকবার তার শ্বাসকষ্ট হয়েছে। পরীমণির ঘনিষ্ঠজনরাই তার অসুস্থ হওয়ার বিষয়টি গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন। জ্বর আর শ্বাসকষ্টকে করোনার উপসর্গ হিসেবে চিহ্নিত করে থাকেন চিকিৎসকরা। তবে করোনার উপসর্গ দেখা গেলেও জনপ্রিয় এই অভিনেত্রী করোনা টেস্ট করিয়েছেন কিনা তা নিশ্চিত করে বলতে পারেননি কেউ। এ অবস্থায় শিল্পীর শুভানুধ্যায়ীরা পরীমনিকে অবিলম্বে করোনা টেস্ট করানোর পরামর্শ দিয়েছেন। চিকিৎসকদের মতে, জ্বর ও শ্বাসকষ্টকে প্রাথমিকভাবে করোনার অন্যতম উপসর্গ ধরা হলেও রোগী যে ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন, তা নিশ্চিতভাবে বলা যাবে না। কোভিড টেস্ট ছাড়া কোনোভাবেই নিশ্চিত হওয়া যাবে না য়ে ভুক্তভোগী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত।

এ ইস্যুতে সরব নয় শিল্পী সমিতি
চলচ্চিত্র সংশ্লিষ্ট সূত্রগুলো জানায়, পরীমনির ঘটনায় চলচ্চিত্রের শিল্পী সমিতি থেকে শুরু করে অন্য সমিতিগুলোও খুব একটা সরব নয়। কারণ, তারা পরীমনির যাবতীয় ঘটনা সম্পর্কে অবগত। বিতর্কিত একজন নায়িকার পক্ষ নিয়ে সমিতিগুলো বিতর্কিত হতে ইচ্ছুক নয়। এখন গুঞ্জন উঠেছে, শুরুতে পরীমনির ঘটনায় পুলিশ ব্যাপক তৎপর হয়ে উঠলেও সময় গড়ানোর সাথে সাথে তা তার দিকে বুমেরাং হয়ে ফিরে আসছে। অনেকে মনে করেন সময়ের ব্যবধানে গ্রেফতারও হতে পারেন পরীমনি।

প্রসঙ্গত, পরীমনিতে ধর্ষণ ও হত্যাচেষ্টার অভিযোগে ব্যবসায়ী নাসির উদ্দিন মাহমুদসহ ছয়জনের বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। সাভার থানায় মামলাটি করেন অভিনেত্রী পরীমনি নিজেই। এই মামলায় নসির উদ্দিন ও পরীর বন্ধু অমি ও তাদের তিন বান্ধবী গ্রেফতার করে রিমান্ডে নেওয়া হয়।

Previous articleঅল ইন ওয়ান গ্রুপের ১৫ হাজার সদস্যপূর্ণ হওযায় আনন্দঘন অনুষ্ঠান
Next articleক্ষুধা আর লকডাউন এক সাথে চলে না: জিএম কাদের
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।