বাংলাদেশ ডেস্ক: দেশের জনপ্রিয় ব্যান্ডদল ‘মাইলস’-এর সঙ্গে আবারও সম্পর্ক ছিন্ন করলেন দলটির মেইন ভোকাল ও গিটারিস্ট শাফিন আহমেদ। শনিবার রাতে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজ থেকে এক ভিডিও বার্তায় এ কথা জানান গায়ক। শাফিন বলেন, ‘মাইলসের বর্তমান লাইন আপের সঙ্গে আমি আর নেই।’ পাশাপাশি মাইলসের কার্যক্রম যেনো এখানেই স্থগিত হয় সে প্রত্যাশাও ব্যক্ত করেন তিনি।

ভিডিও বার্তায় শাফিন আহমেদ বলেন, ‘আমি শাফিন আহমেদ আজকে আপনাদের সামনে কিছু কথা বলতে এসেছি। মাইলস এর সঙ্গে আমার পথ চলা সেই ১৯৭৯ সাল থেকে। বহু বছর পার হয়ে গেছে, অনেক বছর সময় দিয়েছি, শ্রম দিয়েছি এবং অনেক ক্রিয়েটিভ কাজ হয়েছে।’

তিনি আরও বলেন ‘মাইলস এর যে অবস্থান আজকে, এটার পেছনে আমার কতটুকু অবদান সেটা আপনাদের অনেকেই জানেন। তবে একটা সিদ্ধান্ত নিতে আমি বাধ্য হয়েছি সম্প্রতি। সেটা হচ্ছে, এ বছরের শুরুতে আমি সিদ্ধান্ত নেই যে, মাইলস এর বর্তমান লাইন-আপের সঙ্গে মিউজিকের কোনো কার্যক্রম করা আমার পক্ষে সম্ভব হবে না।

এর আগে ২০১৭ সালের অক্টোবরে তিনি একবার ব্যান্ডটি ছাড়ার ঘোষণা দেন। এর কয়েকমাস পর দ্বন্দ্ব ভুলে ফের ব্যান্ডে ফিরেছিলেন। তারও আগে ২০১০ সালের শুরুর দিকে ব্যক্তিগত কারণ দেখিয়ে তিনি ব্যান্ড থেকে সরে দাঁড়ান। আবার ফিরেও আসেন।

ভিডিওবার্তায় মাইলস নিয়ে নিজেরর প্রত্যাশা জানিয়ে শাফিন বলেন, ‘আমার একটা প্রত্যাশা থাকবে, সেটা হচ্ছে যে মাইলস নামটার কোনো অপব্যবহার যেন না হয়। মাইলস কে নিয়ে আমরা ৪০ বছর পূর্তি উদযাপন করেছি খুব গ্লোরিয়াসভাবে, খুব রেসপেক্টফুলি। মাইলস এর যে পজিশন এখন, আমরা যদি একসঙ্গে কাজ করতে না পারি তাহলে মাইলস এর কার্যক্রম এখানেই স্থগিত করা উচিত এবং এটাই আমি মনে করি বেস্ট ডিসিশন।

ফরিদ রশিদের হাত ধরে ১৯৭৯ সালে প্রতিষ্ঠিত হয় মাইলস। ওই বছরই দলটিতে যোগ যোগ দিয়েছিলেন শাফিন আহমেদ। ‘মাইলস’-এর হয়ে তিনি ‘চাঁদ তারা সূর্য’, ‘ফিরিয়ে দাও’, ‘ধিকি ধিকি’, ‘জ্বালা জ্বালা’, ‘শেষ ঠিকানা’, ‘পিয়াসী মন’সহ বহু হিট গান উপহার দিয়েছেন শাফিন।

Previous articleকালকিনিতে পরাজিত ইউপি সদস্য প্রার্থীর ঘেরের মাছ নিধন, আট লাখ টাকার ক্ষতি
Next articleদেশে করোনায় গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু ও শনাক্ত আবার বাড়ল
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।