বাংলাদেশ ডেস্ক: ২১ বছর আগে হত্যা করেছিলেন বান্ধবীকে। কিন্তু পুলিশের কাছে ছিল না কোনো প্রমাণ। অবশেষে পুলিশ নাগাল পায় এই ঠাণ্ডা মাথার খুনির। বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মার্কিন ধনকুবের রবার্ট ডার্স্টের বিরুদ্ধে বান্ধবী সুসান বারম্যানকে হত্যার অভিযোগ আদালতে প্রমাণিত হয়েছে।

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০০০ সালে রবার্টের নিখোঁজ স্ত্রীর ব্যাপারে পুলিশের কাছে যাওয়া ঠেকাতে সুসানকে হত্যা করে রবার্ট। বেভারলি হিলের বাড়িতে ৫৫ বছর বয়সী সুসানের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করা হয়।

রবার্টকে নিয়ে মার্কিন টেলিভিশন চ্যানেল এইচবিও একটি অপরাধ বিষয়ক ডকুমেন্টরি ‘দ্য জিন্স’ নির্মাণ করেছে। এমনকি ওই ডকুমেন্টরির শেষ পর্বেও রবার্টকে নিজের মনে বলতে শোনা যায়, আমি এ কী করলাম। সবাইকে হত্যা করলাম।

শেষ পর্ব প্রচারের আগেই ৭৮ বছর বয়সী রবার্টকে নিউ অরলিন্স থেকে সুসান হত্যার অভিযোগে গ্রেফতার করে পুলিশ। বিচারের সময় ওই ভিডিও ক্লিপটি প্রচার করা হয়েছিল বলে জানা গেছে।

আইনজীবীরা রবার্টকে ‘নার্সিসিস্টিক সাইকোপ্যাথ’ হিসেবে অভিহিত করেছেন। সুসান একজন ক্রাইম রাইটার ছিলেন। স্ত্রী নিখোঁজ হওয়ার পর যখন রবার্টের দিকে পুলিশ সন্দেহের তীর ছোড়ে, তখন সুসান তার মুখপাত্র হিসেবে কাজ করেছেন।

রবার্টের প্রথম স্ত্রী ম্যাককম্যাক ডার্স্টকে ১৯৮২ সালে শেষবারের মতো দেখা গিয়েছিল। ২০১৭ সালে তাকে আইনগতভাবে মৃত ঘোষণা করা হয়। যদিও তার মৃতদেহ কখনোই পাওয়া যায়নি। তাই এজন্য কারো বিরুদ্ধে অভিযোগও তোলা হয়নি।

Previous articleকরোনা রোগী শনাক্তের হার সাড়ে ৬ মাসের মধ্যে সর্বনিম্ন
Next articleছাত্র অধিকার পরিষদের ২০ নেতাকর্মীর জামিন
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।