কাগজ প্রতিবেদক: কয়েক বছরে সরকার ২৬ হাজারের বেশি রেজিস্ট্রার্ড প্রাথমিক বিদ্যালয় জাতীয়করণ করেছে। ওইসব বিদ্যালয়ের প্রায় ১ লাখ শিক্ষকের চাকরি সরকারি করা হয়েছে। মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, বিদ্যালয়ের সঙ্গে জাতীয়করণ হওয়া শিক্ষকদের বেশিরভাগের যোগ্যতা ও দক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন আছে। অনেকের যথাযথ প্রশিক্ষণও নেই। এসব ঘাটতির কারণে জাতীয়করণকৃত বিদ্যালয়ে মানসম্মত পাঠদান বিঘ্নিত হচ্ছে।
এমন পরিস্থিতিতে মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতে জাতীয়কৃত বিদ্যালয়ের মোট শিক্ষকের অর্ধেককে পুরনো সরকারি বিদ্যালয়ে বদলি করা হবে। ওই শূন্যপদে পুরনো বিদ্যালয়ে কর্মরত শিক্ষকদের মধ্য থেকে বদলি করা হবে। সেই হিসেবে অন্তত অর্ধলাখ শিক্ষককে পুরনো সরকারি স্কুলে পাঠানো হবে।মার্চ মাসের মধ্যে এই সিদ্ধান্ত বাস্তবায়িত হবে।
এ ব্যাপারে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. এএফএম মনজুর কাদির বুধবার সাংবাদিকদের বলেন, জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রার (এসডিজি) চতুর্থ দফায় মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিতের কথা বলা হয়েছে। এই শিক্ষা নিশ্চিত করতে হলে উপযুক্ত পাঠদান প্রয়োজন। কিন্তু জাতীয়কৃত বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের একটি অংশের মান নিয়ে অনেকেরই উষ্মা আছে। এমন পরিস্থিতিতে এই বদলি প্রক্রিয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। দু’একদিনের মধ্যে এ ব্যাপারে সরকারি আদেশ জারি করা হবে।

Previous articleসুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের জন্য রিটার্নিং কর্মকর্তাদের ধন্যবাদ: সিইসি
Next articleরূপগঞ্জে শ্রমিক অসন্তোষ,মহাসড়ক অবরোধ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।