কাগজ ডেস্ক: ভোটের দিন সকাল। ফেনী-২ আসনে লড়তে তৈরি হচ্ছেন বিএনপি প্রার্থী অধ্যাপক জয়নাল আবেদিন, যিনি ভিপি জয়নাল নামেই বেশি পরিচিত।
কিন্তু ভোর বেলা থেকেই তার টেলিফোনে আসতে শুরু করলো একের পর এক ফোন কল।
কলাররা সবাই জানতে চাইছে তারা কি ডিসকাউন্ট অফার গ্রহণ করে আইফোন-৮ বা শাওমি রেডমি নোট-৬ ফোনগুলো কিনতে পারবে?
প্রথম দিকে এই কলগুলোকে খুব একটা পাত্তা না দিলেও যে হারে ফোন আসতে শুরু করলো, তাতে মি. আবেদিন বুঝতে পারলেন যে কেউ তার ফোন নাম্বারটিকে ব্যস্ত রাখার চেষ্টা করছে, যাতে তিনি ভোটের সময় তার নির্বাচন কর্মীদের সাথে যোগাযোগ করতে না পারেন।
সদ্য সমাপ্ত জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিপক্ষ প্রার্থীকে নাজেহাল করার এমন অভিনব কৌশলের ঘটনা এর আগে জানা যায়নি।
বিবিসি বাংলার সাথে সেই অভিজ্ঞতা বর্ণনা করে জয়নাল আবেদিন জানান, “গত ৩০ ডিসেম্বর দুটি জাতীয় পত্রিকার ভেতরের পাতায় নামীদামী কোম্পানির মোবাইল ফোন সেটের ওপর ‘ডিসকাউন্ট’ অফার দিয়ে বিজ্ঞাপন ছাপানো হয়।
কিন্তু সেই বিজ্ঞাপনে আমার বর্তমান ফোন নম্বর এবং আমার একটি পুরোনো নাম্বার, যেটি আমি এখন ব্যবহার করি না, সেগুলো ছাপিয়ে দেয়া হয়।”
পত্রিকায় যে বিজ্ঞাপন ছাপা হয় তাতে বলা হয়, ১৭,৯৯৯ টাকার শাওমি রেডমি নোট-৬ ডিসকাউন্ট দিয়ে বিক্রি হবে ৭,০০০ টাকায়।
যে আইফোন-৮ এর দাম ৯২,০০০ টাকা সেটি বিক্রি হবে মাত্র ৩২,০০০ টাকায়।
দুটি সেকেন্ডহ্যান্ড মোটরসাইকেলও বিপুল হারে ডিসকাউন্ট দিয়ে বিক্রি করার কথা বিজ্ঞাপনগুলিতে ঘোষণা করা হয়।

ভোটের দিনের সেই পরিস্থিতির কথা বলতে গিয়ে মি. আবেদিনের ছেলে জাবেদ ইকবাল বলছিলেন, নির্বাচনের দিন ভোরবেলা থেকেই মি. আবেদিনের মোবাইলে অপরিচিত নাম্বার থেকে সারাক্ষণ ফোন আসতে থাকে।
“কলাররা এমন সব ডিসকাউন্টের কথা বলছিল, যার সম্পর্কে আমাদের কোন ধারণাই ছিল না। এসব কলের অত্যাচারে আমরা না পারছিলাম নেতাকর্মীদের কল রিসিভ করতে, না পারছিলাম কাউকে ফোন করতে।”
“পরে একসময় একজন কলারের সাথে বিস্তারিত কথা বলে জানতে পারলাম পুরো ঘটনা,” বলছিলেন জাবেদ ইকবাল।
পত্রিকা দুটির ভেতরের পাতায় যে চারটি বিজ্ঞাপন ছাপা হয়েছে তাতে বিএনপি প্রার্থীর দুটি মোবাইল নাম্বার ছাড়াও আরও একটি ফোন নাম্বার দেয়া হয়েছে যেটি এক সময় ব্যবহার করতেন ফেনী-৩ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য প্রয়াত মুহাম্মদ মোশাররফ হোসেন।
“এবারের নির্বাচনে আমরা নানামুখী চাপের মধ্যে ছিলাম,” বলছিলেন জাবেদ ইকবাল, “ভোটের সময় প্রতিপক্ষ নানা ধরনের চাল চেলে থেকে। কিন্তু এধরনের কৌশলের কথা আমরা কল্পনাও করতে পারিনি।”
কে বা কারা এই কাজ করেছে সে সম্পর্কে কিছুটা ধারণা থাকলেও বিষয়টি নিয়ে তদন্ত করে কোন লাভ হবে না বলে মনে করছেন না মি. ইকবাল।
অধ্যাপক জয়নাল আবেদিন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে পরাজিত হয়েছেন।
ফেনী-২ আসনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নিজাম উদ্দিন হাজারী পেয়েছেন দুই লাখ ৯০ হাজার ৬৬৮ ভোট।
আর ২০০১ ও ২০০৮ সালের নির্বাচনে বিজয়ী ধানের শীষের প্রার্থী মি. আবেদিন এবার পেয়েছেন মাত্র পাঁচ হাজার ৭৮৪ ভোট।
সূত্র: বিবিসি