বাংলাদেশ প্রতিবেদক: রাষ্ট্রদ্রোহিতা ও মানহানির অভিযোগ এনে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের (ডাকসু) সাবেক ভিপি নুরুল হক নুরের বিরুদ্ধে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মামলা দায়ের করেছেন জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল।

রোববার (২০ ডিসেম্বর) বেলা সাড়ে ১১টায় সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট প্রথম আদালতে তিনি মামলাটি দায়ের করেন।

অভিযোগে মামলার বাদী ও জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি রবিউল হোসেন রুবেল বলেন, ১৬ ডিসেম্বর রাত ৮টার দিকে নুরুল হক নুরু তার ব্যক্তিগত আইডি থেকে ফেসবুক লাইভে এসে সরকার ও সরকারের সাংবিধানিক বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে সাধারণ মানুষকে উস্কে দেওয়ার হীন আক্রমণাত্মক মিথ্যা ভীতি প্রদর্শক তথ্য উপাত্ত প্রকাশ করেন। বাংলাদেশের বৈধ নির্বাচিত সরকারকে বারবার অবৈধ অনির্বাচিত সরকার বলে আখ্যায়িত করেন। পাশাপাশি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগকে বঙ্গবন্ধু আদর্শ বিরোধী ও ছাত্রলীগ কর্মীদের নিয়ে বারবার আপত্তিকর অশালীন মন্তব্য করেন তিনি। বাংলাদেশ সরকারকে বিদেশি পা-চাটা তাবেদার সরকার বলে কটুক্তি করেন তিনি। তার এমন মিথ্যা বক্তব্যের কারণে দেশের বিভিন্ন স্থানে দাঙ্গা ও ফ্যাসাদ সৃষ্টি করেছে। পাশাপাশি সে মাদকাসক্ত ও ফেনসিডিল ব্যবসায়ী বলে অসত্য মানহানিকর বক্তব্য পেশ করেছেন আমার বিরুদ্ধে।

মামলার বাদী রবিউল হোসেন রুবেল আরো বলেন, আসামি নুরুল হক নুর বাংলাদেশের বন্ধুত্বপূর্ণ রাষ্ট্র সম্পর্কে মিথ্যা ও উত্তেজনাকর পরিস্থিতি সৃষ্টির ষড়যন্ত্র করে রাষ্ট্রকে অস্থিতিশীল ও অশান্ত পরিবেশ সৃষ্টি, আইনশৃঙ্খলার অবনতি ঘটানোর জন্য আক্রমণাত্মক মিথ্যা তথ্য প্রকাশ করেন। পাশাপাশি আমাকে ব্যক্তিগতভাবে কটুবাক্য প্রয়োগ করে আমার মানহানি করেছেন। মামলার বাদী হিসাবে নুরের গ্রেফতারসহ দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি।

এ মামলার আইনজীবী অ্যাডভোকেট মো. একরাম হোসেন ডালিম জানান, রাষ্ট্রদ্রোহিতার পাশাপাশি মানহানির অভিযোগ এনে ঢাকসুর সাবেক ভিপি ও সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা নুরুল হক নুরের বিরুদ্ধে জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি বাদী হয়ে মামলটি দায়ের করেছেন। বিজ্ঞ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট প্রথম আদালতের বিচারক আয়েশা বেগম আমলাটি গ্রহণ করেন।