রংপুরে ঘরে ঢুকে কলেজছাত্রীকে ধর্ষণ

সদরুল আইন: রংপুরের মিঠাপুকুরে এক কলেজছাত্রী ধর্ষণের শিকার হয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রীকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

জানা যায়, বুধবার (১৫ জানুয়ারি) রাতে উপজেলার চেংমারী ইউনিয়নের তিলকপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

একই গ্রামের ফুলু মিয়ার ছেলে জাকির হোসেন ঘরে ঢুকে মেয়েটির শ্লীলতাহানি ঘটায়। মিঠাপুকুর উপজেলার একটি কলেজে একাদশ শ্রেণিতে পড়ে মেয়েটি।

জানা গেছে, বুধবার রাত ৯টার দিকে ওই ছাত্রী তিলকপাড়া গ্রামের নিজ বাড়িতে পড়াশোনা করছিল। এ সময় তার বাবা ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে ছিলেন। মা-ও বেড়াতে যান পাশের বাড়িতে।

এ সুযোগে একই গ্রামের ফুলু মিয়ার ছেলে জাকির হোসেন ঘরে ঢুকে জোরপূর্বক মেয়েটির শ্লীলতাহানি ঘটায়।

এতে মেয়েটি অচেতন হয়ে পড়লে ঘটনাস্থল থেকে সটকে পড়ে জাকির হোসেন। পরে পরিবারের লোকজন এসে বিষয়টি জানতে পারেন।

ওই রাতেই তাকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের গাইনি বিভাগে ভর্তি করা হয়।

কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. শ্যামলী গণমাধ্যমকে জানান, মেয়েটির প্রচণ্ড রক্তক্ষরণ হয়েছে। তাকে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার (১৬ জানুয়ারি) সকালে তাকে ওয়ান স্টপ ক্রাইসিস সেন্টারে (ওসিসি) স্থানান্তর করা হয়েছে।

মেয়েটির বাবা জানান, তিনি ছোট একটি দোকান করে কোনো রকমে সংসার চালান। এর পাশাপাশি মেয়েকে লেখাপড়া করাচ্ছেন। বুধবার রাতে তার মা পাশের এক আত্মীয়ের বাসায় বেড়াতে যাবার সুযোগে লম্পট জাকির আমার মেয়ের সর্বনাশ করে।

রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক ডা. ফরিদুল ইসলাম চৌধুরী জানান, মেয়েটিকে বুধবার রাত ১০টার দিকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তার অবস্থা গুরুতর ছিল। তাৎক্ষণিকভাবে প্রয়োজনীয় চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে। তাকে হাসপাতালের ওসিসিতে স্থানান্তর করা হয়েছে।

মিঠাপুকুর থানা পরিদর্শক (তদন্ত) হাবিবুর রহমান বলেন, বিষয়টি জানার পর হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে এখনো মেয়ের স্বজনরা মুখ খুলছে না। ঘটনার বিষয়ে তদন্ত চলছে।