রবিবার, জুন ২৩, ২০২৪
Homeসারাবাংলাবাউফলে দীর্ঘ হচ্ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, স্বাস্থ্য বিধি মানার নেই কোন বালাই

বাউফলে দীর্ঘ হচ্ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা, স্বাস্থ্য বিধি মানার নেই কোন বালাই

অতুল পাল: সারা দেশের মতো বাউফলেও ক্রমেই দীর্ঘ হচ্ছে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা। আক্রান্ত রোধে সরকার ঘোষিত স্বাস্থ্য বিধিও মেনে চলার নেই কোন বালাই। এরকমটা চলতে থাকলে করোনার ভয়ঙ্কর রুপ দেখতে হতে পারে বাউফলবাসিকে, এমনটাই আশংকা করছেন সাধারন মানুষ। চলতি বছরের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা রোগি শনাক্ত হওয়ার পর ভাইরাসটি নিয়ন্ত্রণে প্রশাসনের করাকরি আরোপের ফলে বাউফলে সংক্রামণ একেবারেই ছিল না। কিন্তু ঢাকা, নারায়নগঞ্জসহ দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে গোপণে লোকজন আসতে শুরু করলে গত ২৪ এপ্রিল বাউফলে প্রথম পাঁচজনের করোনা পজেটিভ চিহ্নিত হয়। ওই পাঁচজন নারায়নগঞ্জ থেকে বাউফলে এসেছিলেন। সেই থেকে এ পর্যন্ত ৩৪৪ জনের নমূণা সংগ্রহ করে পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। যাদের নমূণা পাঠনো হয়েছে তাদের মধ্যে সাবেক ও বর্তমান উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পণা কর্মকর্তা, একাধিক চিকিৎসক, পুলিশের পরিবার এবং ছাত্রনেতাসহ ৩১ জনের করোনা পজেটিভ চিহ্নিত হয়েছে। আক্রান্তদের মধ্যে চিকিৎসারত অবস্থায় তিনজনের মৃত্যু হয়েছে এবং উপসর্গ নিয়ে এক মুক্তিযোদ্ধাসহ সাতজন মারা গেছেন। বাকিরা হোম আইসোলেশনে রয়েছেন। তবে বেসরকারি হিসেবে আরো বেশি আক্রান্ত ও বেশি মৃত্যু হয়েছে বলে একাধিক সূত্র থেকে জানা গেছে। একাধিক ব্যাক্তি জানান, গণপরিবহণ উন্মূক্ত করে দেয়ার পর দেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে হাজার হাজার মানুষ বাউফলে আসা যাওয়া করছে। এরফলে সামাজিকভাবে করোনা ভাইরাসটি দ্রুতগতিতে বাউফলে ছড়িয়ে পড়ছে বলে অনেকে ধারণা করছেন। অপরদিকে বাউফলে খুবই ধীরগতিতে নমূণা সংগ্রহ করা হচ্ছে এবং সাধারন মানুষের মধ্য থেকে আদৌ নমূণা সংগ্রহ করা হচ্ছে না। কেবলমাত্র অসুস্থ্য হয়ে হাসপাতালে এলে তাদেরই নমূণা সংগ্রহ করা হচ্ছে। অপরদিকে বাউফল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রধানসহ একাধিক চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়ে পড়ায় ওই চিকিৎসকদের চেম্বার করা দুটি ক্লিনিকও লকডাউন করা হয়েছে। এরফলে জ্বর, সর্দি-কাশিসহ নানাবিধ রোগের চিকিৎসা সেবা মারত্নকভাবে ব্যহত হচ্ছে। এদিকে সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ি অধিকাংশ মানুষ মাস্ক ব্যবহার করছেন না। শারীরিক দুরত্ব বজায় রেখে হাটবাজারও করছেন না। সরকারি নির্দেশনা অমান্য করে সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত দোকানপাট খোলা রাখা হচ্ছে। এবিষয়ে প্রশাসনও স্তিমিত হয়ে পড়েছেন। সার্বিক বিচেনায় বাউফলে হঠাৎ করে করোনার প্রদুর্ভাব দেখা দিতে পারে বলে আশংকা করা হচ্ছে। বাউফল উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. জাকির হোসেন জানান, সরকারি বিধিবিধান মেনে দোকানপাট খোলা ও বন্ধ করা , শারীরিক দুরত্ব বজায় রাখা এবং মাস্ক ব্যবহার নিশ্চিতসহ সকল ধরণের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলার জন্য উপজেলার সকল হাটবাজারে মাইকং করা হচ্ছে। এগুলো কঠোরভাবে মেনে চলতে শীঘ্রই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হবে।

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments