রংপুরের বদরগঞ্জ এবং গঙ্গাচড়ায় শিশু ধর্ষনের অভিযোগে ২ যুবক গ্রেফতার

জয়নাল আবেদীন : মায়ের কাছে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে ষষ্ঠ শ্রেণির এক শিশুকে ধর্ষণের অভিযোগে রায়হান হক নামের এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য ওই শিশুটিকে রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়েছে। এই ঘটনা রংপুরের বদরগঞ্জের বালুয়াভাটা এলাকায় শনিবার রাতে । পুলিশ জানায় শিশুটি স্থানীয় চাঁদকুঠিরডাঙ্গা বিএম কারিগরি স্কুল অ্যান্ড কলেজের ষষ্ঠ শ্রেণির শিক্ষার্থী। শনিবার রাতে শিশুটিকে পাশ্ববর্তী রায়হান হক নামের এক যুবক তার মা ডাকছে বলে নিজ বাড়িতে ডেকে নেয়। বাড়িতে গিয়ে শিশুটি দেখে সেখানে তার মা নেই। পরে ঘরের ভেতর তার মা বসে গল্প করছে বলে রায়হান কৌশলে ডেকে নেন। এসময় রায়হান তাদের একটি ঘরে নিয়ে শিশুটিকে ধর্ষণ করে। পরে শিশুটির চিৎকার শুনে ছুটে আসে শিশুটির মা। এক পর্যায়ে শিশুটি হাটতে না পারায় কোলে তুলে বাড়িয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। মেয়ের কান্নাকাটি দেখে ছুটে আসেন আশপাশের লোকজনও। পরে রাতে শিশুটিকে থানায় নিয়ে তার বাবা রায়হান হকের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা দেন। এ ঘটনায় পুলিশ রাতেই রায়হানকে নিজ বাড়ি থেকে গ্রেপ্তার করে। বদরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আরিফুল হক বলেন, ‘ধর্ষণের অভিযোগ পাওয়ার পর শিশুটির স্বীকারোক্তি নিয়ে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এদিকে গঙ্গাচড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সুশান্ত কুমার সরকার জানিয়েছেন ২য় শ্রেনীর শিশুকে ধর্ষণ চেষ্টার অভিযোগে আল আমিন নামে এক যুবককে শনিবার রাতে গ্রেফতার করা হয়েছে ।