বাংলাদেশ প্রতিবেদক: ড্রেজারের সাথে ধাক্কায় পদ্মায় ডুবে যাওয়া ফেরি রাণীগঞ্জ উদ্ধার করা হয়েছে। সোমবার (১৪ ডিসেম্বর) সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় উদ্ধারকারী জাহাজ নির্ভীক ফেরিটি টেনে তোলে।

এর আগে গেল ৬ ডিসেম্বর রাত পৌনে ১১টার দিকে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার নৌরুটের জাজিরার কাছে ড্রেজারের ধাক্কায় ২১ যান ভর্তি ডাম্প ফেরি রাণীগঞ্জের তলা ফেটে যায়। পরে দ্রুত ফেরিটি বাংলাবাজার ঘাটে নোঙ্গর করে। ডুবে যেতে থাকা ফেরি থেকে ৭টি যাত্রীবাহী বাস, ৭টি প্রাইভেটকার এবং পণ্যবাহী ৭টি ট্রাক নামিয়ে আনা হয়। এরপরই ঘাটের অপর প্রান্তে তীরে নোঙ্গর করা ফেরিটি আস্তে আস্তে ডুবে যায়।

বিআইডব্লিউটিএ’র উপ পরিচালক মো. জসিম উদ্দিন জানিয়েছেন, ৭ ডিসেম্বর বরিশাল থেকে রওনা হয়ে ৯ ডিসেম্বর সন্ধ্যায় নির্ভীক দুর্ঘটনাস্থলে পৌঁছায়। ১০ ডিসেম্বর থেকে নির্ভীক উদ্ধার কাজ শুরু করে। অবশেষে সোমবার সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় ফেরিটি উদ্ধারে সমর্থ হয়।

বিআইডব্লিউটিএ’র চেয়ারম্যান কমডোর গোলাম সাদেক সময় সংবাদকে জানান, বড় আকারের ফেরিটি উদ্ধারে একটি চ্যালেঞ্জ ছিল। অবশেষে বিআইডব্লিউটিএ’র কর্মীদের চেষ্টায় উদ্ধার সফল হয়েছে। বিআইডব্লিউটিএ’র উদ্ধারকারী জাহাজ নির্ভীক এই প্রথম কোস ফেরি উদ্ধারে সক্ষম হলো।

কর্মকর্তারা জানান, ফেরিটির ওজন ছিল ২২০ মেট্রিক টন। আর নির্ভীকের সক্ষমতা ২৫০ মেট্রিক টন।

১১টি উচ্চ ক্ষমতা পাম্প মেশিন পানি সরাচ্ছে। এরপরই ফেরিটির তলা ওয়েল্ডিং করে মেরামত করার প্রস্তুতি রাখা হয়েছে। কাজ শেষ করে নির্ভীক আবার বরিশালে ফিরে যাওয়ার কথা রয়েছে।