বাংলাদেশ প্রতিবেদক: চিরকুটে প্রেমিককে দায়ী করে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছেন বগুড়ায় জলি খাতুন (২১) নামের এক কলেজছাত্রী।

বৃহস্পতিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে দিকে শহরের কামারগাড়ি এলাকার একটি ছাত্রীনিবাস থেকে পুলিশ তার মরদেহ উদ্ধার করে। পরে মরদেহটি শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়।

মারা যাওয়া ছাত্রী সিরাজগঞ্জের সলঙ্গা থানার ঘুড়কা বাজার এলাকার জাহাঙ্গীর আলমের মেয়ে। তিনি বগুড়া সরকারি আজিজুল হক কলেজের গণিত দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্রী ছিলেন।

জলি খাতুনের পরিবার সূত্রে জানা যায়, আজিজুল হক কলেজের গণিত বিভাগে ভর্তি হওয়ার পর থেকে পাশেই কামারগাড়ি মুগ্ধ ছাত্রীনিবাসে থেকে পড়াশোনা করতেন ওই শিক্ষার্থী।

বৃহস্পতিবার দুপুরে বগুড়া সদর থানার উপ পরিদর্শক (এসআই) জহুরুল ইসলাম জানান, খবর পেয়ে শহরের কামারগাড়ি এলাকার মুগ্ধ ছাত্রীনিবাস থেকে জলি খাতুনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়। তিনি ছাত্রীনিবাসের ছাদের হুকের সঙ্গে দড়ি ঝুলিয়ে আত্মহত্যা করেন। তার মরদেহ উদ্ধারকালে ঘর থেকে একটি চিরকুট উদ্ধার করা হয়। সেই কাগজে মৃত্যুর কারণ হিসেবে নিজের প্রেমিককে দায়ী করেছেন তিনি। তবে তদন্তের স্বার্থে প্রেমিকের নাম প্রকাশ করা হচ্ছে না।

বগুড়া সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ুন কবীর জানান, মরদেহ ময়নাতদন্ত শেষে পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। চিরকুটের বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।