গিয়াস কামাল: আসন্ন সোনারগাঁও উপজেলার ইউপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে জাতীয় পার্টির মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থীর বাড়িতে হামলা ও বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখার ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে এবং অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

গত রবিবার ইউনিয়নের পাকুন্ডা এলাকায় জাতীয় পার্টির প্রার্থী আশরাফুল ইসলামের বাড়িতে হামলা চালায় আওয়মীলীগ প্রার্থী হুমায়ুন কবীর ভূইঁয়া। এতে জাতীয় পার্টির ১০ কর্মী আহত হয়েছে বলে জানা গেছে। জামপুর ইউনিয়নের জাতীয়পার্টি চেয়ারম্যান প্রার্থী আশরাফুল ইসলাম জানান , গত শনিবার রাতে জামপুরের তালতলা এলাকায় আমার গণসংযোগ শেষ হওয়ার পরপরই সরকার দলীয় আওয়ামীলীগ প্রার্থীর লোকজনের ওপর অতর্কিত হামলা চালায়। হামলায় আমার দুই কর্মী গুরুতর আহত হয়। এ হামলার রেশ ধরে আওয়ামীলীগ প্রার্থী হুমায়ন কবীর ভূইঁয়া পাশ্ববর্তী আড়াইহাজার উপজেলার থেকে বহিরাগত লোকজন এনে রবিবার সকালে আমার বাড়ির সামনে এসে বাড়ির গেইটে হামলা চালায়। হামলায় বাধা দিতে গিয়ে আমার ছোট ভাই সহ ৭ জন আহত হয়। পরে সন্ধ্যায় আবার তারা আমার বাড়ির সামনে এসে পুলিশের উপস্থিতিতে মোটর সাইকেলের মহড়া দিয়ে বাড়ির প্রবেশ গেইটে সামনে দাড়িয়ে বাড়ি অবরুদ্ধ করে রাখে। হামলার ঘটনায় আওয়ামীলীগ প্রার্থী হুমায়ন কবীর ভূইঁয়া বলেন, প্রতিপক্ষ জাতীয়পার্টির প্রার্থীর অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা। আমি এ ঘটনা কিছুই জানি না। আমার বাড়ির সামনে আমার সমর্থিত লোকজন থাকবে এটাই স্বাভাবিক। আমাদের দুজনের বাড়ি সামনাসামনি। হয়তো ভুল বোঝাবুঝি হয়েছে। সোনারগাঁও থানার ওসি মোহাম্মদ হাফিজুর রহমান জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

Previous articleভূঞাপুরে আল-আরাফাহ ইসলামী ব্যাংকের আউটলেট শাখা’র উদ্বোধন
Next articleকালকিনিতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর বিরুদ্ধে নৌকার প্রার্থীর অভিযোগ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।