জয়নাল আবেদীন: নিখোঁজের ৫দিন পর আহেলা বেগম নামে এক নারীর ক্ষতবিক্ষত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। রোববার সকালে রংপুরের গঙ্গাচড়ার বুড়িরহাট কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের পরিত্যক্ত ভবন থেকে মরদেহটি উদ্ধার হয়।

পুলিশ জানায় ব্যাংকের ডিপিএস এর টাকা উত্তোলণ করতে যাওয়ার পর থেকে আহেলা বেগমের কোন সন্ধান পাওয়া যাচ্ছিল না। জানাগেছে, নগরীর ৬নং ওয়ার্ডের বাহাদুরসিং এলাকার আহেদ আলীর স্ত্রী কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের পাশেই চ্যাংমারী এলাকার আবাসনে বসবাস করতো। স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে ওখানে ছিল। তার একমাত্র সন্তান রায়হান ঢাকায় চাকরি করেন।

পরিবার জানায়, আহেলা স্থানীয় জুট মিল ও বিভিন্ন বাসাবাড়িতে কাজ করত। তার রংপুর নগরীর জাহাজ কোম্পানী মোড় পূবালী ব্যাংক শাখায় শাখায় ডিপিএস ছিল। সেখানে প্রতি মাসে টাকা করে জমা রাখতেন। কৃষি গবেষনা কেন্দ্রের কৃষি ফার্ম শ্রমিক সমিতির এক নেতার সাথে পরিচয়ের সুবাদে তার মাধ্যমেও ব্যাংকে টাকা পাঠাতেন এবং ব্যাংকের সকল কাগজপত্রাদি তার কাছে ছিল। জমি কেনার কথা বলে গত বুধবার ব্যাংকের সকল টাকা উত্তোলনের জন্য কর্মস্থল থেকে ছুটি নিয়ে আবাসনের বাড়ি থেকে বের হন আহেলা বেগম। এরপর থেকে আর খোঁজ মেলেনি আহেলার।

রোববার সকালে তার মরদেহ স্থানীয় শ্রমিকরা দেখে পুলিশে খবর দিলে পুলিশ এসে উদ্ধার করে। গঙ্গাচড়া মডেল থানার ওসি সুশান্ত কুমার জানান, নিহতের মাথায় ও দেহের বিভিন্নস্থানের আঘাতের চিহ্নিরয়েছে। লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রমেক মর্গে পাঠানো হয়েছে। এবিষয়ে নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে মামলা দায়ের করা হচ্ছে। বিসয়টি গুরুত্বসহকারে তদন্ত করা হচ্ছেবলে পুলিশ জানিয়েছে ।

Previous articleচাকরির প্রলোভন দেখিয়ে অচেতন করে এক সন্তানের জননীকে ধর্ষণের অভিযোগ যুবলীগ নেতার বিরুদ্ধে
Next articleরমজানে ৬ খাদ্যপণ্য সাশ্রয়ী দামে পাবে কোটি মানুষ: বাণিজ্যমন্ত্রী
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।