বাংলাদেশ প্রতিবেদক: বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তীতে নরেন্দ্র মোদির আগমনের প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল ও কুশপুত্তলিকা দাহ করার কর্মসূচি দেয় বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশন। তাদের কর্মসূচি শুরু হওয়ার আগেই টিএসসিতে দাহের জন্য তৈরি করে রাখা কুশপুত্তলিকা কেড়ে নিয়ে গেছে ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। এ ছাড়া আন্দোলনকারীদের ‘চুপ’ থাকতে বলেছেন তারা।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের (ঢাবি) ছাত্র-শিক্ষক কেন্দ্রে (টিএসসি) এ ঘটনা ঘটেছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সকাল থেকে বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের নেতাকর্মীরা টিএসসিতে জড়ো হতে থাকে। তারা নরেন্দ্র মোদির কুশপুত্তলিকা বানিয়ে টিএসসিতে রাখে। অন্যদিকে বিকেল তিনটায় ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিলে ‘যোগদানের’ জন্য সকাল থেকে রাজু ভাস্কর্যে বাংলাদেশ ছাত্রলীগের উপ-সাহিত্য বিষয়ক সম্পাদক রিয়াদ হাসানের নেতৃত্বে কবি নজরুল কলেজ ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা অবস্থান নেয়। ফেডারেশনের কর্মসূচি শুরুর আগেই টিএসসিতে রাখা মোদির কুশপুত্তলিকা কেড়ে নেয় ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। এ সময় ছাত্র ফেডারেশনের নেতাকর্মীরা বাধা দিলেও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা তাদের ‘চুপ’ থাকতে বলে।

বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের সভাপতি গোলাম মোস্তফা বলেন, আমাদের পূর্বঘোষিত কর্মসূচি সাম্প্রদায়িক নরেন্দ্র মোদির বাংলাদেশে আগমনের প্রতিবাদে। বাংলাদেশ ছাত্র ফেডারেশনের পক্ষ থেকে আমরা একটি কুশপুত্তলিকা পোড়ানোর কর্মসূচি দেই। সে লক্ষ্যে আমরা একটি কুশপুত্তলিকা তৈরি করে টিএসসি গেটে রাখি। তখন রাজু ভাস্কর্য থেকে ছাত্রলীগের ৩০-৪০জন নেতাকর্মী এসে কুশপুত্তলিকা নিয়ে মোটরসাইকেলে করে পালিয়ে যায়। এর মাধ্যমে ছাত্রলীগ ভারতে নরেন্দ্র মোদির করা সকল অপকর্মের সমর্থন দিয়েছে।

গোলাম মোস্তফা আরও বলেন, তারা আমাদের গণতান্ত্রিক কর্মসূচিতে বাধা প্রদান করেছে। যা আমাদের মুক্তিযুদ্ধের চেতনার সঙ্গে তীব্র সাংঘর্ষিক। আমরা এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি।

Previous articleসুবর্ণচরে ধর্ষণ চেষ্টার মামলা করায় বাড়ি ছাড়া গৃহবধূর পরিবার!
Next articleফায়ারিং স্কোয়াডে ১৪ জঙ্গির মৃত্যুদণ্ড কার্যকরের নির্দেশ
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।