৪ বছরেও শেষ হয়নি হোসনি দালানে গ্রেনেড হামলার বিচার কাজ

৪ বছরেও শেষ হয়নি হোসনি দালানে গ্রেনেড হামলার বিচার কাজ

সদরুল আইন: রাজধানীর পুরান ঢাকার হোসাইনি দালানে পবিত্র আশুরায় তাজিয়া মিছিলে গ্রেনেড হামলার বিচার কাজ শেষ হয়নি চার বছরেও।

সাক্ষী না আসায় এক বছরেরও বেশি সময় ধরে আটকে আছে বিচার কাজ। জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির পরও আদালতে হাজির হন না সাক্ষীরা।

২০১৫ সালের ২৩ অক্টোবর কারবালা শহীদদের শ্রদ্ধা জানাতে পুরান ঢাকার হোসনি দালানে চলছিলো তাজিয়া মিছিলের প্রস্তুতি। এসময় গ্রেনেড হামলা চালায় জেএমবি। যাতে প্রাণ যায় দুজনের আর এই হামলায় আহত হয় শতাধিক। এমন নৃশংসতা হতবাক করে পুরান ঢাকাসহ গোটা দেশকে। সন্ত্রাসবিরোধী আইনে মামলা করে পুলিশ।

এ মামলায় ২০১৭ সালে বিচার শুরু হয় ১০ আসামির। অভিযোগপত্রে উল্লেখ করা হয়, আসামিরা সবাই জেএমবির সদস্য। গেলো বছর অক্টোবরে মামলাটির সবশেষ সাক্ষ্য নেয়া হয়। এরপর থমকে আছে সাক্ষ্যগ্রহণ।

আসামিপক্ষের আইনজীবী বলছেন, রাষ্ট্রপক্ষের ভুলে এ মামলার বিচারকাজ আটকে আছে। সেই সাথে শিশু আসামিদের বিচারকাজ নিয়ে, তৈরী হয়েছে নতুন জটিলতা। তবে রাষ্ট্রপক্ষ বলছে, সাক্ষ্যগ্রহণ না করতে পারায় তাদের দায় নেই।

সবশেষ রোববার সাক্ষ্য গ্রহণের দিন থাকলেও হাজির হয়নি কোনো সাক্ষী। এ মামলায় ৬ আসামি কারাগারে থাকলেও জামিনে আছেন ৪ জন।