বুধবার, এপ্রিল ২৪, ২০২৪
Homeজাতীয়করোনা সমাজ ও অর্থনীতির দুর্বলতাগুলো ভালোভাবে দেখিয়ে দিচ্ছে: ড. ইউনুস

করোনা সমাজ ও অর্থনীতির দুর্বলতাগুলো ভালোভাবে দেখিয়ে দিচ্ছে: ড. ইউনুস

বাংকাদেশ ডেস্ক: কোভিড-১৯ সমাজ ও অর্থনীতির দুর্বলতাগুলো আমাদের সামনে বেশ ভালোভাবে তুলে ধরেছে বলে মন্তব্য করেছেন নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মুহাম্মদ ইউনুস। তিনি বলেছেন, সংক্রমণ ঠেকাতে জারি লকডাউন বিশেষ করে অর্থনীতির অনানুষ্ঠিক খাতের মানুষগুলোকে মারাত্মক এক সংকটের মুখে ঠেলে দিয়েছে।

২০০৬ সালে নোবেল শান্তি পুরস্কারে ভূষিত হন বাংলাদেশের ক্ষুদ্র ঋণের জনক ড. মুহাম্মদ ইউনুস ও তার প্রতিষ্ঠিত গ্রামীণ ব্যাংক। ফেয়ার শেয়ার ফর চিলড্রেন নামে একটি শিশু সম্মেলনে বুধবার তিনি এসব মন্তব্য করেন বলে ভারতীয় দৈনিক টাইমস অব ইন্ডিয়ার বৃহস্পতিবারের এক অনলাইন প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

ড. ইউনুস বিশেষ করে ভারতের কথা উল্লেখ করে বলেন, লকডাউনে কীভাবে ভারতের পরিযায়ী শ্রমিকরা কাজ হারিয়ে হেঁটে হেঁটে তাদের বাড়িতে ফিরতে বাধ্য হয়েছেন তা তো আমরা দেখতে পেয়েছি।

তিনি বলেন, ‘কোভিড আমাদের সমাজ ও অর্থনীতির দুর্বলতাগুলোকে দেখিয়ে দিয়েছে। দিনমজুর লোকদের বিশাল স্থানান্তরের ঘটনা ঘটেছে। শিগগিরই আয়শূন্য হয়েছেন তারা। নিজেরা খেতে পারেনি। বিশেষ করে ভারতে কর্মহীন এসব মানুষ মাইলের পর মাইল পায়ে হেঁটে বাড়ি ফিরেছে, কারণ কোনও আয় ছিল না তাদের।’

‘ফুড সিকিউরিটি ডিউরিং কোভিড-১৯ : এন্ডিং চাইল্ড হাঙ্গার অ্যান্ড স্টপিং দ্য ভাইরাস ফর গুড’ শিরোনামে একটি সেশনে দেয়া বক্তব্যে নোবেল জয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মুহাম্মদ ইউনুস বলেন, ‘অতএব একটা বিষয় আমাদের তুলে ধরতে হবে যে, ‘যে যেখানেই জন্মগ্রহণ করুক না কেন, সেখানে যেন তার উপার্জন সম্ভব হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের পুষ্টির দিকে মনোযোগ দিতে হবে, তবে শুধু শিশুদের প্রতি দৃষ্টি নিবদ্ধ করলেও সমাধান সম্ভব নয়। শিশু এবং মা একসঙ্গে থাকে। তাই মা যদি ক্ষুধার্ত হয় তবে শিশুটিও ক্ষুধার্ত থাকে তাই আমাদের দারিদ্র্যপীড়িত পরিবারগুলোকে খাবার দিতে হবে। পরিবার সম্পর্কে চিন্তা করতে হবে আমাদের।’

আজকের বাংলাদেশhttps://www.ajkerbangladesh.com.bd/
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।
RELATED ARTICLES
- Advertisment -

Most Popular

Recent Comments