এম আই সুজন: নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে কাদের মির্জা-বাদল গ্রুপের সংঘর্ষে পেশাগত দায়িত্ব পালনকালে সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কিরকে নির্মম ভাবে গুলি করে হত্যার প্রতিবাদ ও বিচারের দাবিতে নীলফামারীর ডিমলায় মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করা হয়েছে ।ডিমলা প্রেসক্লাব, বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম(বিএমএসএফ)ডিমলা শাখা ও অনলাইন নিউজ পোর্টাল বার্তা বাজার ডটকম পরিবারের যৌথ উদ্যোগে মঙ্গলবার(২৩ ফেব্রুয়ারি)দুপুরে উপজেলা সদরের স্মৃতি অম্লান চত্বরে ঘন্টাব্যাপী এই কর্মসূচি পালন করা হয়।এতে একাত্বতা প্রকাশ করে স্থানীয় সকল সাংবাদিক,ব্যবসায়ী নেতা ও সকল শ্রেণী-পেশার মানুষ স্বতঃস্ফূর্ত ভাবে অংশগ্রহণ করে হত্যাকাণ্ডের সঙ্গে জড়িতদের দ্রুত গ্রেফতার ও বিচারের দাবি জানান।ডিমলা প্রেসক্লাবের সভাপতি মাজহারুল ইসলাম লিটনের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক সহিদুল ইসলামের সঞ্চালনায় এ সময় বক্তব্য রাখেন,বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম(বিএমএসএফ)এর ডিমলা উপজেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মহিনুল ইসলাম সুজন,অনলাইন প্রেসক্লাবের সভাপতি সরোয়ার জাহান সোহাগ প্রমুখ।

প্রসঙ্গত:গত শুক্রবার বিকেলে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার চাপরাশিরহাট পূর্ব বাজারে মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ও সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদলের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ চলাকালে সংবাদ সংগ্রহের সময় গুলিবিদ্ধ হন সাংবাদিক বুরহান উদ্দিন মুজাক্কির।গত শনিবার রাত ১০টা ৪৫মিনিটে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।
নিহত মুজাক্কির দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার ও অনলাইন পোর্টাল বার্তা বাজারের প্রতিনিধি ছিলেন। তিনি উপজেলার চরফকিরা ইউনিয়নের নোয়াব আলী মাস্টারের ছেলে। নোয়াখালী সরকারি কলেজ থেকে সম্প্রতি রাষ্ট্র বিজ্ঞানে মাস্টার্স শেষ করে সাংবাদিকতায় যুক্ত হয়েছিলেন তিনি।