জয়নাল আবেদীন: রংপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কোতোয়ালি থানার ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে এক তরুণীর মৃত্যু হয়েছে। সোমবার দুপুওে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

মৃত তরুণীর নাম রুহি আক্তার রুহি(১৯)। তার বাবার নাম সেকেন্দার আলী, মা মোসলেমা। বাড়ি ঝিনাইদহ জেলার হরিনাকুন্ড এলাকায়। দুপুরে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারের ভেতর থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হয়।

পুলিশ বলছে, গলায় ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেছে ওই তরুণী। পুলিশ জানায়, ওই তরুণীর সঙ্গে রংপুর নগরীর ৯ নম্বও ওয়ার্ডেও বাহার কাছনা রাম গোবিন্দমোড় এলাকার আকাশ নামে এক ছেলের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। গত বছরের মার্চে ওই তরুণী ঝিনাইদহ থেকে আকাশের সঙ্গে দেখা করতে আসে। এ সময় স্থানীয়রা তাকে ঘোরা ঘুরি করতে দেখে ৯৯৯ এ ফোন দিলে পুলিশ সেখান থেকে তাকে উদ্ধার কওে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টাওে নিয়ে যায়। পরে তাকে তার স্বজনদের কাছে হন্তান্তর করা হয়। এরপর গত শনিবার আবার ওই তরণী আকাশের সঙ্গে দেখা করতে ঝিনাইদহ থেকে রংপুরে চলে আসে। একপর্যায়ে আকাশের মুঠোফোন বন্ধ পেয়ে ওই এলাকায় ঘোরাঘুরি করতে থাকে তরুণী।

শনিবার রাত সাড়ে ৩টার দিকে ৯৯৯ এ খবর পেয়ে হারাগাছ থানা পুলিশ তাকে উদ্ধারকরে কোতোয়ালি থানার ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে নিয়ে আসে।সেখানে দুইরাত অবস্থানের দ্বিতীয় দিন রোববার রাতে সিলিংয়ে ওড়না পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন রুহি। সেখান থেকে সোমবার সকালে ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করা হয় তার। পরেমরদেহ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়। আরপিএমপির উপ পুলিশ কমিশনার সাজ্জাদ হোসেন জানান, ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারের ফ্যানে ফাঁস দিয়ে ওই তরুণী আত্মহত্যা করেছে। দুপুওে তার মরদেহ ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানো হয়েছে। স্বজনদের খবর পাঠানো হয়েছে। তারা আসলে আইনগত প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ হন্তান্তর করা হবে।

Previous articleসোনামসজিদে জাল স্টাম্প জব্দ, গ্রেপ্তার ২
Next articleচাঁপাইনবাবগঞ্জে র‌্যাবের অভিযানে ১০ জন মাদকসেবী আটক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।