বাংলাদেশ ডেস্ক: ইসরাইলের সেনাবাহিনী ও প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের ‘জাতীয় জরুরি অবস্থা ব্যবস্থাপনা কর্তৃপক্ষ হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে সর্বাত্মক যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে। রোববার হিজবুল্লাহর বিরুদ্ধে সর্বাত্মক যুদ্ধ প্রস্তুতির অংশ হিসেবে ইসরাইলি কর্তৃপক্ষ এক সপ্তাহব্যাপী সামরিক অনুশীলনের আয়োজন করে। ইসরাইলের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম এমন সংবাদ প্রকাশ করেছে।

ইহুদি রাষ্ট্রটির এ সামরিক অনুশীলনে এমন একটি যুদ্ধের মহড়া চলে যেখানে হিজবুল্লাহ বিভিন্ন পাল্লার এক লাখ রকেট বা ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহার করতে পারে ইসরাইলের বিরুদ্ধে। এছাড়াও হিজবুল্লাহর কাছে অনেকগুলো ক্ষেপণাস্ত্র আছে যেগুলো নির্ভুলভাবে লক্ষ্যে আঘাত হানতে পারে। এ ক্ষেপণাস্ত্রগুলোকে ইসরাইলের নিরাপত্তার জন্য মারাত্মক হুমকি হিসেবে বিবেচনা করা হয় বলে জানিয়েছে দ্যা টাইমস অব ইসরাইল।

ইসরাইলি সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা মনে করেন যে হিজবুল্লাহর সামরিক সক্ষমতার কারণে সংগঠনটি ইরানের আনবিক অস্ত্রের পরে দেশটির (ইসরাইলের) জন্য দ্বিতীয় প্রধান নিরাপত্তা হুমকি।

ইসরাইল দীর্ঘ দিন ধরে ইরান সমর্থিত লেবানিজ সংগঠন হিজবুল্লাহকে নিজেদের শত্রু বলে মনে করে। লেবানন ও ইসরাইল এখনো যুদ্ধাবস্থায় আছে। বহু বছর ধরে লেবাননের স্থল সীমান্ত ও সমুদ্রসীমা নিয়ে ইসরাইলের সাথে দ্বন্দ্ব আছে।

সম্প্রতিক সময়ে ইসরাইল তার প্রবিবেশী দেশ সিরিয়ায় কয়েক শ’বার বিমান হামলা করেছে। ইরানি সামরিক সমাবেশ বা হিজবুল্লাহর কাছে অস্ত্র সরবরাহ বন্ধে এসব বিমান আক্রমণ করা হয়।

এদিকে ইসরাইলের সেনাবাহিনীর হোমফ্রন্ট কমান্ডের চিফ অব স্টাফ ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইতজিক বার বলেন, হিজবুল্লাহর অস্ত্রভাণ্ডারে থাকা নির্ভুল লক্ষ্যে আঘাত হানতে পারা ক্ষেপণাস্ত্রগুলো এবং আমাদের ওপর এ ক্ষেপণাস্ত্রগুলোর কার্যকারিতা একটি গুরুত্বপূর্ণ ইস্যু।

সূত্র : আরব নিউজ

Previous article‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’ স্লোগান দিয়েই মৃত্যুর কোলে বীর মুক্তিযোদ্ধা
Next articleবড়াইগ্রামে ৫ বিদ্রোহী প্রার্থীকে আ’লীগ থেকে বহিষ্কার
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।