আবু বক্কর সিদ্দিক: গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ থানা পুলিশ একটি পারিবারিক টয়লেট থেকে ৪ মাস বয়সী নূর-হাওয়া নামে এক শিশুর লাশ উদ্ধার ও শিশুটির মা তাঞ্জি বেগমকে (৩৮) গ্রেপ্তার করেছে। স্থানীয়রা জানান, রবিবার সন্ধ্যায় সুন্দরগঞ্জ পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের ধুমাইটারী মহল্লার তেঁতুলতলাস্থ জনৈক নুরুল ইসলামের পারিবারিক টয়লেট থেকে শিশু নূর-হাওয়ার লাশ উদ্ধার ও শিশুটির মা তাঞ্জি বেগমকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। তাঞ্জি বেগম নুরুল ইসলামের ৩য় স্ত্রী ও নূর-হাওয়া তাদের একমাত্র সন্তান। নুরুল ইসলামের ১ম ও ২য় স্ত্রীর কোন সন্তান না থাকায় কয়েক বছর আগে তাঞ্জি বেগমকে ৩য় বিয়ে করেন। এ কথা জানিয়ে ধারণা পোশণ করে স্থানীয়রা আরো জানান, নিঃ সন্তান নুরুল ইসলামের ১ম ও ২য় স্ত্রীকে ফাঁসাতে গিয়ে হয়তো বা নিজের সন্তানকে হত্যা করে লাশ টয়লেটে রেখে প্রথমে শিশু নুর-হাওয়া নিখোঁজ বলে প্রচারণা চালায় তাঞ্জি বেগম। এ ঘটনার পরদিন গত সন্ধ্যায় টয়লেট থেকে শিশু নূর- হাওয়ার লাশ উদ্ধার করেন থানা পুলিশ। থানার এসআই শাহানাজ পারভীন ও মোজাম্মেল হক পৃথক পৃথকভাবে জানান, শনিবার (৩০ জানুয়রী) শিশু নূর-হাওয়া নিখোঁজ হবার বিষয়টি জানতে পেয়ে ব্যাপক তল্লাশী চালানোর পর ঐ বাড়ির টয়লেট থেকে শিশুটির লাশ উদ্ধার পূর্বক সুরুতহাল রিপোর্ট শেষে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে পাঠানোর ব্যবস্থা চলছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে শিশু নূর-হাওয়ার মা তাঞ্জি বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। থানার নিরস্ত্র পুলিশ পরিদর্শক (ওসি, তদন্ত) বুলবুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, এব্যাপারে থানায় একটি হত্যা মামলার প্রস্তুতি চলছে।

Previous articleভূঞাপুর পৌর নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় ১৬ বাড়ি ভাঙচুর
Next articleমিয়ানমারে সেনা অভ্যুত্থান, সু চি আটক
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।