অতুল পাল: বাউফলে একটি দোতলা কাঠের বসতঘরে রহস্যজনক অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার (১৯ জানুয়ারি)ভোররাতে উপজেলার কেশবপুর ইউনিয়নের কেশবপুর গ্রামে ওই ঘটনা ঘটেছে।

বাউফল ফায়ার সার্ভিস কর্তৃপক্ষ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই ঘরটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, রাত অনুমান ৩ টার দিকে ঘরটিতে অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটে। আগুণ লাগার পর বিকট শব্দ শুনতে পেয়ে প্রতিবেশি কামাল হোসেন, শাহিদা বেগম, আলতাফ হোসেন ও শান্তা বেগম দৌড়ে এসে চিৎকার শুরু করেন। ঘটনার রাতে বসত ঘরে কেউ ছিলেন না। প্রতিবেশিরা ছুটে এসে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। প্রায় ৫ ঘন্টা পর সকাল অনুমান ৭টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের লোকজন ঘটনাস্থলে যান। ততক্ষণে সব পুড়ে ছাই হয়ে যায়। এলাকার বাহিরে থাকা ঘরের মালিক রফিকুল ইসলাম জানান, পূর্বশত্রুতার জের ধরে কেশবপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন পিকু এবং তার লোকজন আমার বসত ঘরটিতে আগুন দিয়েছেন। চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন পিকুর বিরুদ্ধে আমার মাইক্রোবাস পুড়িয়ে দেওয়া, ঘরের মালামাল লুন্ঠন, রড চুরি ও আমাকে কুপিয়ে হত্যার চেষ্টাসহ একাধিক মামলা চলমা চেয়ারম্যানের সাথে আমার একাধিক মামলা রয়েছে। পুড়ে যাওয়া ঘর ও মালামালের ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণ প্রায় ২৫ লক্ষাধিক টাকা বলে তিনি দাবী করেন।

ইউপি চেয়ারম্যান সালাউদ্দিন পিকু বলেন, রফিকুল ইসলাম আমার দুই ভাই খুনের মামলার আসামী। সেজন্য তার ঘরে আগুন দেওয়ার কথা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। তিনি বা তার কোন দোসর আমাকে ফাঁসাতে এ ঘটনা ঘটাতে পারে। উপজেলা ফায়ার সার্ভিসের পরিদর্শক আরিফুজ্জামান শেখ জানান, আমাদের টিম ঘটনাস্থলে পৌঁছানোর আগেই ঘরটি পুড়ে ছাই হয়ে যায়। বাউফল থানার অফিসার ইনচার্জ আল মামুন জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠানো হয়েছে। তবে এখনও কোন অভিযোগ পাইনি।

Previous articleইরানের জন্য হেলমান্দ নদীর পানি ছেড়ে দিল তালেবান সরকার
Next articleশ্রীপুরে রেল কতৃপক্ষের অবহেলায় ৩টি বগি লাইনচ্যুত
আজকের বাংলাদেশ ডিজিটাল নিউজ পেপার এখন দেশ-বিদেশের সর্বশেষ খবর নিয়ে প্রতিদিন অনলাইনে । ব্রেকিং নিউজ, জাতীয়, আন্তর্জাতিক রিপোর্টিং, রাজনীতি, বিনোদন, খেলাধুলা আরও অন্যান্য সংবাদ বিভাগ । আমাদের হাত বাধা নেই, আমাদের চোখ খোলা আমরা বলতে পারি ।